সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৫ সময় ১১:১৭ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক সিটি মেয়র আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, সারাদেশে পেট্রোল বোমা দিয়ে যে ভাবে মানুষ পোড়ানো হচ্ছে তা ৭১ সালের বর্বরতাকে স্মরণ করিয়ে দেয়। রাজনীতি, হরতাল ও অবরোধের নামে যেভাবে নিরীহ মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে অবিলম্বে তা বন্ধ করতে হবে। তিনি বলেন, এসএসসি পরীক্ষার্থী তথা কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের জিম্মি করে যে ভাবে সন্ত্রাস চালানো হচ্ছে একটি সভ্য সমাজে তা কল্পনা করা যায় না। মহিউদ্দিন চৌধুরী চলমান সন্ত্রাসের রিরুদ্ধে ছাত্র-শিক্ষক অভিভাবকসহ সর্বস্তরের পেশাজীবীদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।

আজ শুক্রবার বিকেলে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি (বাকশিস) চট্টগ্রাম জেলা শাখার নেতৃবৃন্দের সাথে চলমান শিক্ষক কর্মচারী আন্দোলনের অংশ হিসেবে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি বাকশিস চট্টগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ দবির উদ্দিন খান ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবু তাহের চৌধুরীর নেতৃত্বে বাকশিসের প্রতিদিনিধি দল তাঁর সাথে মতবিনিময়কালে মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, বেসরকারি এমপিও ভূক্ত শিক্ষকত কর্মচারীদেও স্বয়ংক্রিয়ভাবে জাতীয় বেতন স্কেলে অন্তর্ভূক্ত করাসহ জাতীয় শিক্ষক কর্মচারী ফ্রনেটর ২১ দফা দাবির প্রতি সম্মান জানিয়ে বলেন, শিক্ষকরা জাতি গড়ার কারিগর। তাদের কোন ভাবে অবহেলা করা যাবে না। তিনি বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি শিক্ষা ক্ষেত্রে বৈষম্য সৃস্টিও জন্য নয়। বৈষম্য সৃষ্টির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর জন্য তিনি শিক্ষক সমাজের প্রতি আহবান জানান। তিনি এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার দাবী করেন এবং শিক্ষক ছাত্রসহ সকল অভিভাবকদের পরীক্ষা কেন্দ্র পাহারা দিয়ে কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষাকে নিরবচ্ছিন্ন করার আহবান জানান। মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রে যারা হামলা করেছে, তারা দেশ ও জাতির দুষমন। তাদের চিহ্নিত করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করার জন্য সর্বস্তরের জনগনের প্রতিও আহবান জানান।

চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডেও বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতি প্রসঙ্গে মহিউদ্দি চৌধুরী বলেন, এক শ্রেণির কর্মকর্তা র্দীঘ দিন চট্টগ্রাম মিক্ষা বোর্ডে অবস্থান করে বোর্ডকে তাদের হীন স্বার্থ চরিতার্থ করার চেষ্টা করছে। তিনি শিক্ষা বোর্ডেও সকল অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে শিক্ষক ছাত্রদের আন্দোলনে সমর্থন ব্যাক্ত করেন।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, অধ্যক্ষ আসলাম হোসেন, অধ্যক্ষ সমীর কান্তি দাশ, অধ্যক্ষ আবুল খায়ের, অধ্যক্ষ এস.এম মেসবাহউর রহমান, অধ্যক্ষ জিল্লুর রহমান, অধ্যাপক কুকুমার দত্ত, অধ্যাপক শিব প্রসাদ, অধ্যাপক আবু জাফর সিদ্দীকী, অধ্যাপক আজিজ উদ্দীন হায়দার, অধ্যাপক ইউনুছ মিয়া, অধ্যাপক সৈয়দ উদ্দীন আহমদ, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, অধ্যাপক ইছহাক উদ্দীন চৌধুরী, অধ্যাপক স্বপন নাথ, অধ্যাপক আবদুস সাত্তার, অধ্যাপক হোসেন শহীদ, অহিদুল আলম, অধ্যাপক রফিকুল আরম হাসান, অধ্যাপক সুপর্না রায় চৌধুরী, অধ্যাপক মুনা পারভীন, অধ্যাপক আইরীন পারভীন প্রমুখ।