সদস্যদের অগোচরে সমিতির নিজস্ব প্যাডে বিবৃতি দেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ , ২০১৬ সময় ১০:৫১ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির কার্যকরী কমিটির অন্য সদস্যদের অগোচরে সমিতির নিজস্ব প্যাডে বিবৃতি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সাধারণ সম্পাদক কাজী খসরুল আলম কুদ্দুসী বিরুদ্ধে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় সমিতির কার্যালয়ে জরুরি বৈঠকে বসে শিক্ষক সমিতি। এতে সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড.আবুল মনছুরসহ অন্যান্যরা উপস্থিত থাকলেও সাধারণ সম্পাদক কাজী খসরুল আলম কুদ্দুসী ছিলেন না।

বৈঠকে বৃহস্পতিবার বিকেল চারটার মধ্যে সেই বিবৃতি প্রত্যাহার করে তা নিজের বক্তব্য হিসেবে দাবি করার জন্য সাধারণ সম্পাদককে বলার সিদ্ধান্ত হয়। সাধারণ সম্পাদক তা মেনে নিলে বিষয়টা এখানেই নিষ্পত্তি হবে। তবে তিনি তা মেনে না নিলে সমিতি পাল্টা বিবৃতি দিয়ে সাধারণ সম্পাকদের দেওয়া সেই বিবৃতি শিক্ষক সমিতির নয় বলে গণমাধ্যমকে জানাবে বলেও সিদ্ধান্ত নেন সমিতির সদস্যরা।

শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বিশ্ববিদ্যালয়ের পদোন্নতির ক্ষেত্রে বৈষম্যের বিষয়ে বুধবার নিজ স্বাক্ষরিত একটি বিবৃতি গণমাধ্যমে পাঠান। পাশাপাশি সমিতির প্যাডে একই বিবৃতি শিক্ষকদের কাছে বিলি করেন। সেই বিবৃতিতে তিনি ‘শিক্ষক সমিতি মনে করেন’ বলে উল্লেখ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল মনছুর বাংলানিউজকে বলেন, সাধারণ সম্পাদকের দেওয়া বিবৃতির বিষয়ে শিক্ষক সমিতির অন্য কেউ ওয়াকিবহল ছিলেন না। শিক্ষকরাই বিবৃতির বিষয়টি ফোনে আমাকে জানিয়েছেন। এ বিষয়ে সাধারণ সম্পাদকের কাছে জবাব চাইব। তিনি সদুত্তর দিতে না পারলে, সমিতি পাল্টা বিবৃতি দিয়ে বিষয়টি একান্তই সাধারণ সম্পাদকের নিজস্ব বলে জানাবে।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যদি পদোন্নতির বিষয়ে বৈষম্য করে তাহলে আমরা সবাই তার বিপক্ষে আন্দোলন করতাম। কিন্তু তিনি বিষয়টি সবাইকে জানাতে পারতেন।