সতীর্থদের সমালোচনায় মুশফিক

প্রকাশ:| রবিবার, ১৪ জুন , ২০১৫ সময় ০৮:২৩ অপরাহ্ণ

রত্যাশিতভাবে ড্র করলেও ফতুল্লা টেস্টে ফলোঅনের লজ্জায় পড়তে হয়েছে বাংলাদেশকে। সে জন্য দলের ব্যাটসম্যানদের ওপরে বেশ ক্ষুব্ধ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। ব্যাটসম্যানদের আরো সতর্ক হওয়া এবং বোলারদের আরো উন্নতি করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন তিনি।

বৃষ্টির বাধায় প্রথম চারদিন মাত্র ১৩৪ ওভারের মতো খেলা হয়েছে। রোববার পঞ্চম ও শেষ দিনে খেলা শুরু হয়েছে মধ্যাহ্নবিরতির পর। অথচ ভারতের ৪৬২ রানের জবাব দিতে নেমে বাংলাদেশ ২৫৬ রানেই অলআউট। এটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না মুশফিক। খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এটা ঠিক যে শেষ দিনে আমাদের ব্যাটসম্যানরা চরম ব্যর্থ। কয়েকজন ব্যাটসম্যানের সেট হওয়ার পরও আউট হয়ে যাওয়াটা খুবই দুঃখজনক। আরেকটু ধৈর্যের পরিচয় দিতে পারলে হয়তো ফলোঅন এড়ানো যেত। তবে এটা আমাদের একটা শিক্ষা দিল। ভবিষ্যতে এমন পরিস্থিতিতে কীভাবে ব্যাট করতে হবে সেই অভিজ্ঞতাও হলো আমাদের।’

তারপরও মুশফিক মনে করছেন, ব্যাটিং আগের চেয়ে কিছুটা হলেও উন্নতি করেছে। বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক বরং বোলিং নিয়ে বেশি চিন্তিত, ‘আজ আমাদের ব্যাটিং ভালো হয়নি ঠিকই, তবে আগের চেয়ে আমাদের ব্যাটিং কিছুটা হলেও উন্নতি করেছে। বরং এই টেস্টে আমাদের বোলিংয়ে দুর্বলতা ফুটে উঠেছে। বোলিং সাইড নিয়ে আরো কাজ করতে হবে আমাদের।’

একাদশে আরেকজন পেসারের অভাব অনুভব করার কথা জানিয়ে মুশফিক বলেন, ‘দলে আরেকজন পেসার রাখতে পারলে ভালো হতো। একজন পেসার নিয়ে এই ম্যাচ খেলার সিদ্ধান্ত সঠিক ছিল না। ভুল তো মানুষেরই হয়, আমাদেরও হয়েছে। তবে এই সিদ্ধান্ত পুরো টিম ম্যানেজমেন্টের। কারো একার নয়। ভবিষ্যতে এই বিষয় নিয়ে আমাদের আরো ভাবতে হবে।’

শুধু দলের নয়, নিজের পারফরম্যান্সও আরো ভালো হওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি, ‘বেশ কিছুদিন ধরেই টেস্টে ভালো করতে পারছি না। এটা আমি ভালোভাবেই বুঝতে পারছি। দলের অধিনায়ক এবং সিনিয়র খেলোয়াড় হিসেবে আমার ফর্মে ফেরা জরুরি। আমি অবশ্য মনে করি ফর্মে ফেরা সময়ের ব্যাপার।’

আঙুলের চোটের উন্নতি হচ্ছে জানিয়ে দেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান বলেন, ‘ধীরে ধীরে আমার চোটের উন্নতি হচ্ছে। ব্যথাও আগের চেয়ে কমেছে। ব্যাটিংয়ের সময় তেমন সমস্যা হয় না। আশা করি ওয়ানডে সিরিজে উইকেটকিপিং করতে পারব।’