সচিবালয়ে শিগগিরই ওয়াইফাই

প্রকাশ:| শনিবার, ১ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ১২:৪৯ পূর্বাহ্ণ

সরকার রাজধানী থেকে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত হাইস্পিড কানেকটিভিটির মাধ্যমে ই-গভর্নেন্স বাস্তবায়নে অঙ্গীকারবদ্ধ, সঠিকভাবে ই-গভর্নেন্স বাস্তবায়িত হলে গুড গভর্নেন্স বাস্তবায়ন ও সহজ হয়ে যাবে। যার মধ্য দিয়ে সরকারের ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত প্রযুক্তি নির্ভও ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের প্রয়াস সফল হবে।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বিসিসি অডিটোরিয়ামে ‘অপারেশন অ্যান্ড মেইনটেন্যান্স অব দ্য ন্যাশনাল ব্যাকবোন নেটওয়ার্ক অব বাংলাদেশ গভর্নমেন্ট’ শীর্ষক সেমিনারে আলোচকরা এ অভিমত দেন। সেমিনারে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তর, দপ্তর ও সংস্থার ২৫০ জন কর্মকর্তা অংশ নেন।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) নির্বাহী পরিচালক এসএম আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার। আলোচনায় অংশ নেন আইসিটি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কামাল উদ্দিন আহমেদ, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপন পরিচালক হোসনে আরা বেগম, বাংলাগভর্নেট প্রকল্প পরিচালক মাহবুবুর রহমান, প্রকল্প বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান এসকে সি অ্যান্ড সি কোং এর গ্লোবাল ম্যানেজার ব্রায়ান ব্রে প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বাংলাগভর্নেট প্রকল্প পরিচালক মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘সচিবালয়ের কিছু কিছু ভবন আগে থেকেই ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের আওতায় ছিল। এখন সম্পূর্ণ এলাকা ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের আওতায় আনার কাজ শেষের পথে। শীঘ্রই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মতি পেলেই আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে।’

বাংলাগভর্নেট প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে ৫৬টি মন্ত্রণালয় বিভাগ, ১১৪টিঅধিদপ্তর, দপ্তর, সংস্থা, ৬৪টি জেলা ও প্রত্যেক জেলার ১টি করে উপজেলা ব্যাকবোন নেটওয়ার্কের আওতায় চলে আসবে। ফলে দ্রুত ডাটা ট্রান্সফার, ভিডিও কনফারেন্সিং ও আইপি ফোন ব্যবহারের সুবিধা সহ ইনফ্রা নেটওয়ার্কিং এর ক্ষেত্রে যুগান্তকারী অগ্রগতি সাধিত হবে।


আরোও সংবাদ