সংলাপ হবে-মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডাব্লিউ মজিনা

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর , ২০১৩ সময় ০৯:০৯ অপরাহ্ণ

মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডাব্লিউ মজিনামার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডাব্লিউ মজিনা বলেছেন, ‘গত তিনদিনে প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্যে সংলাপের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। আমি খুব আশাবাদী সংলাপ হবে। সেই সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে বর্তমান রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান হবে।’

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে চলমান পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে সচিবালয়ে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সন্ত্রাসবাদ দমনে সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। বংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব সিকিউকে মোস্তাক আহমেদ এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মজিনা নিজ নিজ সরকারের পক্ষে এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর, প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, সংশ্লিষ্ট দপ্তর এবং যুক্তরাষ্ট্র অ্যাম্বাসির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘বর্তমান সন্ত্রাসবাদ বিশ্বব্যাপী একটি আলোচিত বিষয়। সন্ত্রাসবাদ ও সন্ত্রাসী কোনো দেশের সীমানায় আবদ্ধ নয়। তাই কোনো দেশের পক্ষে এককভাবে সন্ত্রাসবাদ নির্মূল কার সম্ভব নয়। এ বিষয়টি সামনে রেখে বাংলাদেশ সরকার সন্ত্রাসবাদ দমনে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।’

কামাল উদ্দিন বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদ দমনে এটি একটি সহযোগিতার উদ্যোগ। এ উদ্যোগ আইনগত কোনো বাধ্যবাদকতা সৃষ্টি করবে না। এ চুক্তির মাধ্যমে সন্ত্রাস মোকাবেলায় উভয় দেশ যেসব বিষয় সহগোগিতা করতে পারবে তাহলো- সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধে আধুনিক কলাকৌশল বিনিময়, উভয় দেশের আইন প্রয়োগকারী সংস্থার মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি, সম্মতিক্রমে আইনগত সহায়তা প্রদান, মানিলন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধে সহযোগিতা বৃদ্ধি এবং সম্মতিক্রমে সাইবার অপরাধ দমনে সহযোগিতা ইত্যাদি।’

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ড্যান ডাব্লিউ মজিনা বলেন, ‘এ চুক্তির ফলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ এক সঙ্গে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কাজ করতে পারবে। বিশেষ করে মানিলন্ডারিং, সাইবার ক্রাইম কমে আসবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সন্ত্রাসকে সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। এ লক্ষ্যে দুই দেশেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে। এ সহযোগিতা চুক্তির মধ্যেমে আমরা সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে সক্ষম হবো।’