সংবিধান প্রণেতা, বরেণ্য বুদ্ধিজীবী সাংবাদিক অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদের ৯২তম জন্মদিন আজ

প্রকাশ:| শনিবার, ৫ জুলাই , ২০১৪ সময় ০৮:২৮ অপরাহ্ণ

000শুধু সাংবাদিক হিসেবে নন, একজন রাজনীতিবিদ, দেশের সংবিধানের অন্যতম রচয়িতা,
শিক্ষাবিদ, সংস্কৃতি সংগঠক হিসেবেও তাঁর রয়েছে বিশেষ খ্যাতি
বাংলাদেশের রাজনৈতিক ও সাংবাদিকতার ইতিহাসে অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ এক অনন্য নাম। ১৯৬০ সাল থেকে মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন সংবাদপত্রের সাথে। তাঁর মতো সত্যনিষ্ঠ, সাহসী, নির্লোভ, সংস্কারমুক্ত ও উদার মানসিকতার মানুষ সমাজে বিরল। শুধু সাংবাদিক হিসেবে নন, একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে, দেশের সংবিধানের অন্যতম রচয়িতা হিসেবে, শিক্ষাবিদ হিসেবে, সংস্কৃতি সংগঠক হিসেবে তাঁর রয়েছে বিশেষ খ্যাতি। তিনি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক।
বাংলাদেশের অন্যতম সংবিধান প্রণেতা বরেণ্য বুদ্ধিজীবী ও সাংবাদিক অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদের ৯২তম জন্মদিন যথাযোগ্য মর্যাদায় উদ্যাপন উপলক্ষে গৃহিত কর্মসূচি বাস্তবায়নকল্পে ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আবদুল খালেক ও অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ স্মৃতি পরিষদের চূড়ান্ত প্রস্তুতি সভায় বক্তারা উপর্যুক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন।
গতকাল ৫ জুলাই দৈনিক আজাদী ভবনের চতুর্থ তলায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ জন্মদিন উদ্যাপন উপ কমিটির আহবায়ক মো. মনিরুল ইসলাম চৌধুরী। পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালির পরিচালনায় অন্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আবদুল খালেকের দৌহিত্র ইফতেখার মারুফ, মো. জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদপুত্র মোহাম্মদ জহির, মির্জা ইমতিয়াজ শাওন, মো. আবদুর রহিম, শিল্পী শওকত জাহান, অ্যাডভোকেট আসফাক আহমদ, এ.টি.এম শহীদুল্লাহ শহীদ, আসাদুজ্জামান খান, মুহাম্মদ হাসান মুরাদ, আশেক রসুল খান বাবু, মো. মুরাদ চৌধুরী, মোহাম্মদ মোমিনুল হক, আবুল হাসনাত মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, মো. সাখাওয়াত হোসেন সওকত, আবদুল মালেক ছিদ্দিক, আসাদুজ্জামান জেবিন, চৌধুরী আহছান খুররম, আকরাম হোসেন মাসুদ প্রমুখ।
এদিকে, অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদের ৯২তম জন্মদিন উপলক্ষে পরিষদের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে মরহুমের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ, কবর জেয়ারত, খতমে কুরআন এবং এতিমদের সম্মানে ইফতার মাহফিল।
এ দিন সকাল ১০টায় অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদের গ্রামের বাড়ি রাউজানের সুলতানপুরে পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালির নেতৃত্বে মরহুমের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং কবর জেয়ারত করা হবে। বিকেল ৪টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আবদুল খালেক মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনা সভা ও এতিমদের সম্মানে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। পরিষদের সভাপতি মুহাম্মদ ওসমান গণি চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজনে প্রধান অতিথি থাকবেন বরেণ্য বুদ্ধিজীবী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মো. আনোয়ারুল আজিম আরিফ। এছাড়া, চট্টগ্রামের বিদগ্ধ আলোচকবৃন্দ (অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ সুহৃদ) আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন।