সংবাদকর্মী-পেকুয়া ইউপি আলীগ প্রার্থীর মতবিনিময়

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৮ মার্চ , ২০১৬ সময় ০৮:৫১ অপরাহ্ণ

পেকুয়া প্রতিনিধি ::
আসন্ন ৩১ মার্চ ২য় দফা ইউপি নির্বাচন এর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে পেকুয়া সদর ইউপির নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এ্যাড: কামাল হোসেন উপজেলার কর্মরত সংবাদকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেছে। গতকাল পূর্ব গোয়াখালীস্থ প্রার্থীর নিজস্ব বাসভবনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়। এ সময় তিনি সংবাদকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, সাংবাদিক ভাইরা হচ্ছে জাতীর বিবেক। আপনাদের মাধ্যমে আমার প্রাণের পেকুয়া সদরবাসীকে কিছু কথা বলতে চাই। এবারের নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলার রুপকার সাধারণ জনগণের প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনা নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসাবে আমাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। এর আগেও আমি বিগত ৩বারে সদর ইউপির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। বিএনপির আমলেও আমাকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রানালয় থেকে জেলার শ্রেষ্ট চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে স্বর্ণ পদকে ভুষিত করেছেন। বিগত ১৯৯৬ সাল নির্বাচন পরবর্তি আওয়ামীলীগ সরকারের আমলেও স্বর্ণ পদকে ভুষিত করা হয়। যার কারণে পেকুয়া সদরবাসীর প্রতি আমার দায়বদ্ধতাও বেশি। আমি দৃঢ় কল্পে বলতে চাই আমার সময় কোন নারী নির্যাতন, বিচার বাণিজ্যের কারণে হয়রানির শিকার হয়নি সাধারণ জনগণ থেকে মধ্যবিত্ত সংবাদকর্মী-পেকুয়া ইউপি আলীগ প্রার্থীর মতবিনিময়পরিবার। এমনকি এলাকায় চুরি, ডাকাতি, চাঁদাবাজি, দখলবাজি ও মিথ্যা মামলা বন্ধ ছিল। বর্তমানেও এর হেরফের হবেনা। বর্তমানে পেকুয়া সদর ইউনিয়নবাসীর চরম দূর্ভোগের বিষয় বেঁড়িবাধ। বিগত ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সাধারণ মানুষ সাহায্যে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছি এবং বর্তমান সরকারের কাছে দ্রুত বেড়িবাধ নির্মাণের জন্য আবেদন জানিয়েছিলাম। নির্বাচনে পেকুয়াবাসী আমাকে জয়যুক্ত করলে আমার নির্বাচনী প্রতিশ্র“তি থাকবে দ্রুত বেঁড়িবাধ নির্মাণ পেকুয়া জিএমসি উচ্চ বিদ্যালয়, বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও একটি মহিলা মাদ্রাসা সরকারী করণের যতেষ্ট চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এছাড়াও পেকুয়া কলেজকে ডিগ্রি মানের পর্যায়ে উন্নতি করণে সরকারের সহযোগিতা চাইবো। অন্যদিকে গ্রাম আদালতে ন্যায় বিচার প্রতিষ্টা করা, পুরো এলাকায় সরকারী বরাদ্ধ যতাযত বাস্তবায়ন করে অবকাঠানো উন্নয়নসহ রাস্তা, মসজিদ, এতিমখানাসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানে অগ্রনী ভূমিকা পালন করে যাব। আমি পেকুয়া সংবাদকর্মী ভাইদের প্রতি আমার একটা দাবী রয়েছে। আপনারা পুরো এলাকায় সরোজমিন গিয়ে সাধারণ জনগণের সাথে কথা বলে বস্তুনিষ্ট সংবাদ পরিবেশন করুন। উপকূলীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম হিরুর এক প্রশ্নের উত্তরে চেয়ারম্যান প্রার্থী জানান, উপজেলা, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা ঐক্যবন্ধ হয়ে নৌকার বিজয়ে কাজ করে যাচ্ছে। এ সময় সংবাদকর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এম আজম খান। প্রশাসনের অবস্থান প্রসঙ্গের প্রশ্নে সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এম. আযম খান জানিয়েছেন, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ট, শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষতা বজায় রেখে ওসি ও থানা পুলিশের অবস্থান বিষয়টি এখনো বুঝা যায়নি বলে মন্তব্য করেন।এসময় উপজেলায় কর্মরত ১৩জন সংবাদকর্মী উপস্থিত ছিলেন।


আরোও সংবাদ