সংঘর্ষে ছাত্রলীগ নেতা নিহত, ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা

প্রকাশ:| বুধবার, ১৩ মে , ২০১৫ সময় ১১:১৭ অপরাহ্ণ

সংঘর্ষে ছাত্রলীগ নেতা নিহত, ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণাটাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রপে সংঘর্ষে এক ছাত্রলীগ নেতা নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে আরও দুইজন। নিহত এ.এস.কে. মোশারফ অপরাধতত্ত্ব ও পুলিশ বিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্স দ্বিতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী। আহত ফয়সাল পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টার ও বাধঁন বায়োটকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী। বুধবার বিকেল ৩টার দিকে এ সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ময়মনসিংহের এএসকে মোশারফ গ্রুপ ও টাঙ্গাইলের মনির গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসময় মোশারফ গ্রুপের প্রধান মোশারফসহ আরও একজনকে প্রতিপক্ষের কর্মীরা এলোপাতাড়ি কোপায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তিনজনকে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাদের অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় পাঠানো হয়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সাভারের এনাম হাসপাতালে মোশারফ মারা যায়। টাঙ্গাইল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রাণবন্ধু দে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।
ঘটনার পর থেকে পুরো ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ফের সংঘর্ষে আশঙ্কায় ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ আলাউদ্দিন এর সভাপতিত্বে এক জরুরী সভায় বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আজ রাত সাড়ে আটটার মধ্যে ছেলেদের ও মেয়েদের আগামীকাল সকাল ৯টার মধ্যে হল ত্যাগ করতে বলা হয়েছে।
উল্লেখ্য, পূর্বের সংঘর্ষের ঘটনায় এক শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিস্কার ও ৫ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।


আরোও সংবাদ