শ্রীনিবাসনের পদে ব্যাটিং লিজেন্ড সুনীল গাভাস্কারকে অভিষিক্ত করার পরামর্শ

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৭ মার্চ , ২০১৪ সময় ০৪:৫১ অপরাহ্ণ

ভারতের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ সংস্থার (বিসিসিআই) সভাপতি শ্রীনিবাসনের পদে ব্যাটিং লিজেন্ড সুনীল গাভাস্কারকে অভিষিক্ত করার পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠায় শ্রীনিবাসনকে তার পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেওয়ার পর সর্বোচ্চ আদালতের পক্ষ থেকে এ পরামর্শ এলো।

এ বিষয়ে বিসিসিআইকে শুক্রবারের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানাতে বলেছেন সুপ্রিম কোর্ট।

এছাড়া, অভিযুক্ত চেন্নাই সুপার কিংস ও রাজস্থান রয়্যালসকে আইপিএল’র আসন্ন আসরে না রাখারও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে আদালতের পক্ষ থেকে।

এর আগে গত মঙ্গলবার ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি শ্রীনিবাসনকে তার পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেন সুপ্রিম কোর্ট।

শ্রীনিবাসনের বিরুদ্ধে ২০১৩ সালে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়াম লীগে (আইপিএল) স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠে।

সুপ্রিম কোর্ট জানায়, তিনি সভাপতির পদ থেকে সরে না দাঁড়ালে এ বিষয়ে সঠিক তদন্ত হবে না।

এ বিষয়ে বিচারপতি এ কে পাটনায়েক বলেন, শ্রীনিবাসনের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের বিষয়ে সঠিক তদন্তের জন্য প্রেসিডেন্ট পদ থেকে তার সরে দাঁড়ানো উচিত।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে ফিক্সিংয়ের বিষয়ে মুকুল মুদগালের দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনের ওপর শুনানি হয়। শুনানি শেষে এ কে পাটনায়েক ও ফাক্কির মোহামেদ ইব্রাহিম খলিফুল্লার সমন্বয়ে গঠিত দুই সদস্যের বেঞ্চ এ রায় প্রদান করেন।

চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি ফিক্সিংয়ের বিষয়ে দু’টি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন তদন্ত কাজে গঠিত মুদগাল কমিটি। প্রথম তদন্ত প্রতিবেদনে স্বাক্ষর করেন সাবেক বিচারপতি মুগদাল ও ভারতের অতিরিক্ত প্রধান কৌসুলি এল নাগেশ্বরা রায়। তারা এ বিষয়ে পরবর্তী কার্যক্রমেরও নির্দেশ দেন।

অপর প্রতিবেদনটিতে স্বাক্ষর করেন আসাম ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন বোর্ডের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য নিলয় দত্ত।

আগামী ২৭ মার্চ পর্যন্ত মামলাটি মূলতবি রাখা হয়েছে।