শেষ মুহূর্তে মিসরের কাছ থেকে জয় ছিনিয়ে নিল সৌদি আরব

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| সোমবার, ২৫ জুন , ২০১৮ সময় ১০:৪১ অপরাহ্ণ

এক পয়েন্টের প্রহর গুনছে মিসর ও সৌদি আরব। ঠিক তখনই সৌদি আরবকে ঐতিহাসি এক গোল করে জয় এনে দেন দাউসারি। অতিরিক্ত সময়ের ৫ মিনিটের মাথায় আল ওতায়েফের কাছ থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের দুর্দান্ত শটে ডান কর্নারে বল পাঠিয়ে সৌদি আরবকে ঐতিহাসিক এক জয় এনে দেন দাউসারি। দীর্ঘ ১২ ম্যাচ পর বিশ্বকাপে প্রথম জয় পেল সৌদি আরব। আর শূন্য হাতেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হলো মোহামেদ সালাহর মিসরকে।

ম্যাচের শুরুতে ১২ মিনিটের সময় ম্যাচের প্রথম সুযোগটি মিস করেন সৌদি ফুটবলার আলো দাওসারি। দূরপাল্লার লক্ষ্য ভ্রষ্ট শটে গোল বঞ্চিত হয় এশিয়ার দেশটি। ১৪ মিনিটে আরো একবার দূর থেকে শট নেন তিনি। এবারও ফলাফল একই। ম্যাচের ২২ মিনিটে সৌদি রক্ষণভাগ ভাঙ্গেন সালাহ।

আলো সাঈদের দূর থেকে দেওয়া ক্রসে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে চিপ শটে দারুণ গোল করেন সালাহ। বিশ্বকাপে এটি তার দ্বিতীয় গোল। এই গোলের ঠিক দু মিনিট পর একই রকম জায়গা থেকে গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন সালাহ কিন্তু এবার তিনি গোলমুখে না মেরে বাইরে শট মারেন।

৩৩ ও ৩৪ মিনিটে দুবার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল মিসর। কিন্তু ত্রেজেগেত দুবারই গোলমুখের একদম সামনে এসে বাইরে শট করেন। পিছিয়ে ছিল না সৌদি আরবও। ৩৭ মিনিট আলো ফারাজের বা-পায়ের শট গোললাইন থেকে ব্লক করেন মিসরের রক্ষণভাগের ফুটবলার।

প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার ৪ মিনিট আগে পেনাল্টি পায় সৌদি আরব। ডি বক্সের ভেতর আলো ফাতহির হ্যান্ডবলে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। কিন্তু স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন সৌদি আরবের আলো মুওয়ালাদ। ৪৫ বছর বয়স্ক মিসরের গোলরক্ষক এল হাদারি দারুণভাবে সেভ করেন মুওয়ালাদের শট। কিন্তু তখনও প্রথমার্ধের অনেক রঙ বাকি ছিল।

অতিরিক্ত সময়ের দুই মিনিটের মাথায় ম্যাচে দ্বিতীয়বার পেনাল্টি পায় সৌদি আরব। মুওয়ালাদকে ডি বক্সের ভেতর গাবর হাত টেনে ফেলে দিলে রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন। ভিডিও এসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তা নিয়েও রেফারি সেই পেনাল্টিকেই বহাল রাখেন। স্পট কিক থেকে সালমান আল ফারাজ সৌদিদের হয়ে বিশ্বকাপে প্রথম গোলটি করেন। ১-১ সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় দু’দল।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৪ মিনিটে আবারো পেনাল্টির আবেদন জানায় সৌদি আরব। হাউসাই ডি বক্সের ভেতর পরে গেলেও রেফারি এবার বেশ সাবধানী। পেনাল্টির আবেদন নাকচ করে দেন তিনি। ৫৭ মিনিটে মিসরের ত্রেজেগেতের হেড গোলবারের উপর দিয়ে চলে গেলে গোলবঞ্চিত হয় মিসর।

৬৯ মিনিটে আবারো সৌদি ফুটবলারদের গোল বঞ্চিত করেন এল হাদারি। সৌদি ফুটবলারের হেড রুখে দেন তিনি। দ্বিতিয়ার্ধের পুরো সময় খেললেও ম্যাচে কোন রকম প্রভাব বিস্তার করতে পারেননি মোহামেদ সালাহ। সবাই যখন ড্রয়ের প্রহর গুনছে ঠিক তখনই মিসরকে মাটিতে নামিয়ে সৌদি আরবকে পূর্ণ তিন পয়েন্ট এনে দেন দাউসারি। ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার কয়েক সেকেন্ড আগে গোল করেন এই ফুটবলার। ফলে গ্রুপের শেষ দল হিসেবে শূন্যহাতেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হল সালাহকে।