‘শেখ হাসিনার মানবিকতা বিশ্বে প্রশংসিত’

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর , ২০১৭ সময় ০৮:১০ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম বলেছেন, নিজ ভূমি থেক বিতারিত রোঙ্গিাদের আশ্রয় দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন তা সারা বিশ্বে প্রশংসিত। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে দেশের বিভিন্ন ব্যক্তি, রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন সংগঠন সাড়া দিয়েছেন।

বিদেশী গণমাধ্যম শেখ হাসিনাকে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ উপাধিতে ভূষিত করেছেন। আশ্রিত রোহিঙ্গারা তাদের কন্যা শিশুদের নাম ‘শেখ হাসিনা’ রাখছেন। শুক্রবার দুপুরে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় রোহিঙ্গাদের মানবিক সেবা দিতে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা কাজ করছেন। কোনো রোহিঙ্গা না খেয়ে মরবে না-এ লক্ষ্যে দলের পক্ষ থেকে মানবিক সেবা প্রদান অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য ছয়শ’ শৌচাগার নির্মাণ করা হবে। এছাড়া প্রতিটি ক্যাম্পে দুই জন চিকিৎসক এবং ত্রাণ হিসেবে ওষুধও দলের পক্ষ থেকে সরবরাহ করা হবে। এ সময় সড়কসহ বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়া রোহিঙ্গাদের নির্ধারিত শরণার্থী ক্যাম্পে ফিরে যাওয়া আহবান জানান এই আওয়ামী লীগ নেতা।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মায়ের স্নেহ, বোনের ভালোবাসা নিয়ে রোহিঙ্গাদের বিপদের সময়ে মানবিক কারণে আশ্রয় দিয়েছেন। এখন খাবার-দাবার ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। কিন্তু আমরা তাদের সারা জীবনতো থাকতে দিতে পারবো না। তাদের নিজ দেশে ফিরে যেতেই হবে। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে তিনি জাতিসংঘের অধিবেশনে ৫টি প্রস্তাব তুলে ধরেছেন।

‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতীয় ঐক্য দরকার’ বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বিএনপির ষড়যন্ত্র সফল না হওয়ায় তারা সস্তা রাজনীতি করছেন। রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিএনপি বাদে জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ ও এক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে সবাই সাড়া দিয়েছেন। যার যার সামর্থ অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের পাশে দাড়িয়েছেন। আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ বিভিন্ন সংগঠন রাত দিন পরিশ্রম করছেন। তিনি বলেন, যতদিন রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে পাঠাতে না পারবো ততদিন তাদের জন্য যা যা করা দরকার আওয়ামী লীগ সরকার তা করবে।

পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শিখর ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি, আশেক উল্লাহ রফিক, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন প্রমুখ।

এদিকে উখিয়া-টেকনাফের মাঝপথে ছাত্রলীগের উদ্যোগে আলাদা মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে।


আরোও সংবাদ