শেখ রাসেলের ৫১তম জন্মদিন পালিত

প্রকাশ:| রবিবার, ১৯ অক্টোবর , ২০১৪ সময় ১১:০৪ অপরাহ্ণ

শেখ রাসেলের ৫১তম জন্মদিনেহাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র ছোট ভাই ১৯৭৫ সনের ১৫ আগষ্ট ঘাতকের বুলেটে শহীদ শেখ রাসেলের ৫১তম জন্মদিনটি বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে কেক কাটা, শিশু-কিশোর ও যুব সমাবেশের মধ্য দিয়ে পালিত হয়। ১৮ অক্টোবর ২০১৪খ্রি. শনিবার, বিকেলে নগরীর উত্তর পতেঙ্গাস্থ টি এস পি ক্লাব মিলনায়তনে এ উপলক্ষে শিশু-কিশোর ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। শিশু-কিশোর ও যুব সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদ সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম। সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন আহমদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন শ্যামল, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক চন্দন ধর, সদস্য জাফর আলম চৌধুরী। আলোচনা করেন পতেঙ্গা হালিশহর আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইউনুচ, উত্তর পতেঙ্গা ৪০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাজী শাহাদাত হাসান, সাবেক কমিশনার মো. আসলাম, ইপিজেড থানা বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদের সভাপতি জাবেদুল ইসলাম শিপন, সাধারণ সম্পাদক জাহেদ হোসেন, কার্যকরি সভাপতি সালাউদ্দিন, উত্তর পতেঙ্গা ওয়ার্ড আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি নজরুল ইসলাম, ৪১নং দক্ষিণ পতেঙ্গা ওয়ার্ড আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি মাঈনুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা সুজিত দাশ, আবুল বাশার খান, বঙ্গবন্ধু আদিবাসী স্মৃতি পরিষদ সাধারণ সম্পাদক ক্যাচিং মং মারমা কেচিং, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সাখাওয়াত হোসেন সওকত, সালাউদ্দিন মনু, মহিউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, মো. নিজাম খান, মো. তুহিন, জাহাঙ্গীর আলম, মো. আলফাজ, সাদ্দাম হোসেন, ছাত্রনেতা কামরুজ্জামান রাব্বী, আমরা রাসেলের মো. আতাউর রহমান আতিক, ইশতিয়াক মুহাম্মদ সাকিব, মো. সাজ্জাদ হোসেন তানভির, আশিকুজ্জামান রেজা, পারভেজ ইসলাম তারেক সহ অন্যরা।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন আহমদ চৌধুরী বলেন, শেখ রাসেল একজন নিরপরাধ শিশু ছিল। ঘাতকরা তাকে হত্যা করে ইতিহাসের নিষ্ঠুর তম জগন্য ঘটনার জন্ম দিয়েছে। তিনি বলেন, শেখ রাসেলকে হত্যার মত ঘটনা এ বাংলার পবিত্র মাটিতে যাতে আর কোনদিন সংগঠিত হতে না পারে সে জন্যই শিশু কিশোর ও যুবকদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ার লক্ষে বর্তমান ও আগামী প্রজন্মকে জ্ঞানে গুনে তৈরী হতে হবে। অনুষ্ঠানের শুরুতে শেখ রাসেলের জন্মদিনের কেক কাটা হয় এবং পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত ও মোনাজাত করা হয়। মোনাজাতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা, শেখ রাসেল সহ সকল শহীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

শেখ রাসেলের ৫১তম জন্মদিনে গঠিত হলো উত্তর পতেঙ্গা আমরা রাসেল
সভাপতি মো. আতাউর রহমান আতিক ও সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক মুহাম্মদ সাকিব

১৮ অক্টোবর ২০১৪খ্রি. শনিবার ছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫১তম জন্মদিন। ১৯৭৫ সনের ১৫ আগস্ট পিতা-মাতা-ভাই-বোন ও অন্যদের সাথে ঘাতকের বুলেটে তাকে জীবন দিতে হয়। সেই দিনের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র শেখ রাসেল ১৯৬৪ সনের ১৮ অক্টোবর ঢাকার ধানমন্ডী ৩২নং সড়কের বাড়িতে তার জন্ম। শেখ রাসেলের স্মৃতিকে প্রজন্ম পরম্পরায় জাগরুক রাখার প্রত্যয়ে চট্টগ্রামে গঠিত হয় শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর সংগঠন। ১৮ অক্টোবর ২০১৪খ্রি. শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর ৪০নং উত্তর পতেঙ্গাস্থ টি এস পি ক্লাবে শেখ রাসেল উত্তর পতেঙ্গা ৪০নং ওয়ার্ডের কমিটি গঠনকল্পে এক শিশু-কিশোর ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ সমাবেশে ৩ শতাধিক শিশু-কিশোর ও যুবক উপস্থিত ছিলেন তারা কেক কেটে, মিলাদ ও মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেখ রাসেলের ৫১তম জন্মদিনের উৎসব করে। পরে উপস্থিত সকলের সর্বসম্মত মতামতের ভিত্তিতে ৯ম শ্রেণির ছাত্র মো. আতাউর রহমান আতিককে সভাপতি এবং ১০ম শ্রেণির ছাত্র ইশতিয়াক মুহাম্মদ সাকিবকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির কর্মকর্তা ও সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম। শিশু-কিশোর ও যুব সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জাহাঙ্গীর আলম। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন আহমদ চৌধুরী। প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন শ্যামল। বিশেষ অতিথি ছিলেন আমরা রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর সংগঠন চট্টগ্রামের আহবায়ক ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, মহানগর আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য সাবেক কমিশনার মো. জাফর আলম চৌধুরী। সম্মেলনে উদ্বোধক ছিলেন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম। এতে আলোচক ছিলেন সাংবাদিক এম.এ হোসাইন, পতেঙ্গা হালিশহর আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইউনুচ, উত্তর পতেঙ্গা ৪০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাজী শাহাদাত হাসান, ৩৯নং দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার হাজী মোহাম্মদ আসলাম, ই পি জেড থানা বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদ সভাপতি জাবেদুল ইসলাম শিপন, সাধারণ সম্পাদক মো. জাহেদ হোসেন, টি এস পি’র সি বি এ নেতা সুজিত দাশ, আবুল বশর খান, উত্তর পতেঙ্গা ৪০নং ওয়ার্ড আওয়ামী যুব লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম, দক্ষিণ পতেঙ্গা ৪১নং ওয়ার্ড আওয়ামী যুব লীগের সভাপতি মাইনুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু আদিবাসী স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ক্যাচিং মং মারমা কেচিং, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সাখাওয়াত হোসেন সওকত, সালাউদ্দিন মনু, মহিউদ্দিন, মো. তুহিন, জাহাঙ্গীর আলম, মো. আলফাজ, সাদ্দাম হোসেন, একতা ভূমিহীন সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান, মহানগর ছাত্রলীগের সদস্য কামরুজ্জামান রাব্বি, আমরা রাসেল’র মো. আতাউর রহমান আতিক, ইশতিয়াক মুহাম্মদ সাকিব, মো. সাজ্জাদ হোসেন তানভির, আশিকুজ্জামান রেজা সহ অন্যরা।
সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন আহমদ চৌধুরী বলেন, শিশু-কিশোর ও যুবকদের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। তিনি বলেন, প্রযুক্তি নির্ভর সুশিক্ষায় আলোকিত ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উন্নত ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে। তিনি সকলকে শেখ রাসেলের স্মৃতি ধারণ করার পরামর্শ দেন।