শীঘ্রই বাঁকখালী ভাঙ্গন রোধে ব্যবস্থা নেয়া হবে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৮ জুলাই , ২০১৭ সময় ১০:২৩ অপরাহ্ণ


খালেদ হোসেন টাপু,রামু ::

কক্সবাজারের রামু উপজেলার পশ্চিম চাকামারকুল এলাকায় ভয়াবহ বন্যায় বিশাল এলাকা জুড়ে বাঁকখালী নদীতে সিসি ব্লক তলিয়ে যাওয়ায় কক্সবাজার চট্টগ্রাম মহাসড়কসহ মসজিদ, কবর স্থান ও শতাধিক বসত বাড়ী হুমকির মুখে পড়েছে। দ্রুত ভাঙ্গন রোধে কোন ব্যবস্থা না নিলে যে কোন সময় বন্যায় উল্লেখিত এলাকা সমূহ নদীতে বিলীন হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলে এলাকার ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসী এ আশংকা করছেন। খবর পেয়ে শুক্রবার সরজমিনে ভাঙ্গন পরিদর্শনে যান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম। তিনি বলেন শীঘ্রই উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে ভাঙ্গণরোধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। চাকমারকুল বাসিন্দা বিশিষ্ট সমাজ সেবক গিয়াস উদ্দিন ও জিয়াউল হুদা জানান, গত বছর সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার নদীর তীর মেরামত করতে গিয়ে মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলনের কারণে এ বছর বন্যায় সিসি ব্লক নদীতে তলিয়ে গিয়ে ৩০০ ফুট পর্যন্ত ভাঙ্গন দেখা দেয়। ভাঙ্গনরোধে কোন ব্যবস্থা না নিলে আগামী যে কোন বন্যায় চট্টগ্রাম কক্সবাজার মহাসড়ক নদীর গর্ভে তলিয়ে গিয়ে কক্সবাজার শহরের সাথে সারা দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হবে। এছাড়া পশ্চিম চাকমারকুল জামে মসজিদ, কবর স্থান ও শতাধিক বসতবাড়ী, কৃষিজমি নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে যাবে। শুক্রবার পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগ নেতা মাসুদুর রহমান মাসুদ, যুবলীগ নেতা নবীউল হক আরকান, ইউপি সদস্য ছৈয়দ নূর মেম্বারসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
এদিকে অনতিবিলম্বে জরুরী ভিত্তিতে ভাঙ্গন রোধ করার জন্য জোর দাবী জানান স্থানীয় এলাকাবাসী