শিয়াপাড়া সড়কের ব্রীজে ফুটো, বাড়ছে দূর্ঘটনা

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৮ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ১১:৫১ অপরাহ্ণ

ফুটো
সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও:
চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের শিয়াপাড়া বাঁশকাটা সড়কের ব্রীজে বিশাল আকারের ফুটো হওয়ায় যান চলাচল ও সাধারণ পথচারীদের মধ্যে বাড়ছে দূর্ঘটনা। স্কুল মাদ্রাসাগামী ছাত্র-ছাত্রীরা ব্রীজের এ গর্তে পড়ে পঙ্গুত্বসহ অনেকে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অন্যদিকে সড়কে চলাচলরত সিএনজি-টমটম চালকরা রাতের আধারে এ গর্তে পড়ে জানে রক্ষা পেলেও বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা। তারা ব্রীজটি সংস্কার পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
শুক্রবার বিকেলে সরজমিন ব্রীজ পরিদর্শণপূর্বক এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, বিগত ১৯৮৪ সালে স্থানীয় সরকারের অধীনে ব্রীজটি নির্মাণ করা হয়। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন শিয়াপাড়া, বাঁশকাটা, মাদ্রাসা পাড়া, ছড়া পাড়াসহ ৪ গ্রামের প্রায় ৩ হাজার লোক চলাচলের একমাত্র অবলম্বন ফুলছড়ি ছড়ার উপর স্থাপিত ব্রীজ। বিগত বর্ষার সময়ে এ সড়ক কয়েক দফে বিচ্ছিন্ন হয়। এসময় পাহাড়ি ঢলের তুড়ে ব্রীজের পার্শের খুটির মাটি সরে যায়। ইউনিয়ন পরিষদ ও চকরিয়া উপজেলা পরিষদ সড়কের সংস্কার পূর্বক ব্যাপক উন্নয়ন করলেও ব্রীজ রক্ষায় কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। গত এক সপ্তাহ ধরে ইট বালি মাটি ভর্তি ট্রাক ব্যাপক হারে চলাচল করায় ব্রীজের পশ্চিম পার্শে বড় আকারে গর্ত সৃষ্টি হয়। এতে করে সাধারণ পথচারীদের চলাচলের মারাত্মক বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছে।
স্থানীয় বাসিন্দা ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম জানান, অত্যান্ত জনবহুল ও গুরুত্বপূর্ণ শিয়াপাড়া সড়কের একমাত্র ব্রীজটির বেহাল দশার কারণে যান চলাচল থেকে শুরু করে প্রতি রাতে পথচারীরা গর্তে গিয়ে পড়ে। যার কারণে প্রতিদিন ছোটখাট দূর্ঘটনা লেগেই আছে।
মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা আমান উদ্দিন জানান, ৪ গ্রামের প্রায় ৩ হাজার বাসিন্দার একমাত্র চলাচলের রাস্তা ফুলছড়ি শিয়াপাড়া-বাঁশকাটা সড়ক। গত ক‘দিন ধরে সড়কের একমাত্র ব্রীজের পশ্চিম পাশে গর্ত সৃষ্টি হয়েছে যার কারণে সড়ক দিয়ে চলাচলরত লোকজন চরম আতংকে রয়েছে। ইতিমধ্যে কয়েক দফে ঘটেছে দূর্ঘটনা। তাদের মধ্যে এলাকার একাধিক শিশু ও নারী রয়েছে।
খুটাখালী ইউনিয়ন যুবলীগ সহ সভাপতি ও ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মীর কাশেম জানান, ফুলছড়ি ছড়ার উপর স্থাপিত ব্রীজে ফাটল দেখা দিয়েছে। আগামী বর্ষার আগেই সংস্কার পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা না গেলে অচিরেই ৪ গ্রামের বাসিন্দাদের যোগাযাগ বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি এলাকাবাসীর যোগাযোগ নিশ্চিত করতে ব্রীজটি দ্রুত সংস্কার যান চলাচল স্বাভাবিক করতে চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আলমের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।