শিশু, গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়ের স্বাস্থ্য রক্ষা জরুরী

প্রকাশ:| রবিবার, ৫ এপ্রিল , ২০১৫ সময় ০৬:১৫ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকায় শিশুর পুষ্টি ও স্বাস্থ্য এবং গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়ের পুষ্টি বিষয়ক ‘এ্যাডভোকেসী সভা’

শিশু, গর্ভবতী ও প্রসূতিচট্ট্রগ্রাম সিটি কর্পোরেশন জেনারেল হাসপাতাল মিলনায়তনে চসিক এলাকায় ‘শিশুর পুষ্টি ও স্বাস্থ্য এবং গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়ের পুষ্টি বিষয়ক এ্যাডভোকেসী সভা’ ৫ এপ্রিল ২০১৫খ্রি. রবিবার, সকালে প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ সেলিম আকতার চৌধুরী এর সভাপত্বিতে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় যুগ্ম সচিব ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব কাজী মোহাম্মদ শফিউল আলম। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন চট্টগ্রাম ডাঃ মোঃ সরফরাজ খান চৌধুরী, চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা প্রফেসর মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ। অন্যান্যদের মধ্যে সভায় বক্তব্য রাখেন ইউপিপিআরপি ইউএনডিপি এর টাউন ম্যানেজার জনাব আবদুল্লাহ হিল মামুন, সিনিয়র কনসালটেন্ট (গাইনি) ডাঃ প্রীতি বড়–য়া, এম ও ইনচার্জ ডাঃ আশীষ কুমার মুখার্জী, কনসালটেন্ট (গাইনি) ডাঃ রহিমা খাতুন, আরএমও (গাইনি) ডাঃ দীপা ত্রিপুরা, জোনাল মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ ইমাম হোসেন রানা, ডাঃ মোঃ রফিকুল ইসলাম, ডাঃ তপন কুমার চক্রবর্তী, ডাঃ এইচ এম নজিরুল হক হেলালী, ডাঃ মোঃ হাসান মুরাদ চৌধুরী, ডাঃ সুমন তালুকদার ও ডাঃ মুজিবুল আলম চৌধুরী। এছাড়াও চসিক কর্মরত বিভিন্ন চিকিৎসক, ইপিআই টেকনিশিয়ান, স্বাস্থ্য সহকারী, স্বাস্থ্য কর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ ব্রেস্টফিডিং ফাউন্ডেশন (বিবিএফ) এর প্রোগ্রাম অফিসার দেবব্রত বিশ্বাস, প্রজেক্ট অফিসার আবু শেমা মোঃ আল ইমরান ও মোঃ কামাল হোসাইন শিশুর পুষ্টি ও স্বাস্থ্য এবং গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়ের পুষ্টি বিষয়ক এই এ্যাডভোকেসী সভায় প্রজেক্টরের মাধ্যমে পুষ্টি বিষয়ক বার্তাগুলো সবার নিকট উপস্থাপন করেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব কাজী মোহাম্মদ শফিউল আলম মায়ের দুধ খাওয়ানোর উপকারিতা, মায়ের দুধ কিভাবে সংক্রামক রোগ থেকে রক্ষা করে, মায়ের দুধ না খাওয়ালে যেসব সমস্যা হয়, ঘরে তৈরী বাড়তি খাবার সম্পর্কে, গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়ের পুষ্টি সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য দেন। এছাড়াও তিনি বলেন মায়ের দুধের বিকল্প কিছু নেই এ ব্যাপারে তিনি সকলকে সচেতন হওয়ার আহবান জানান। তিনি সভায় আরও বলেন সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের যে সুনাম অর্জিত হয়েছে তাহা অবশ্যই ধরে রাখতে হবে। তিনি চিকিৎসক/কর্মকর্তা, কর্মচারী সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আরও দায়িত্ববান হওয়ার আহবান জানান। উল্লেখ্য যে, পৃথক পৃথক ব্যাচ অনুযায়ী অনুষ্ঠিতব্য এ্যাডভোকেসী সভায় চসিক স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন জোন অফিস, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে কর্মরত প্রায় ৬০ জনের অধিক মাঠ পর্যায়ে কর্মরত চিকিৎসক, ইপিআই টেকনিশিয়ান, স্বাস্থ্য সহকারী, স্বাস্থ্য কর্মী অংশগ্রহণ করেন।


আরোও সংবাদ