‘শিক্ষার্থীদের আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি করছে সরকার’

প্রকাশ:| রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:১১ অপরাহ্ণ

আধুনিক প্রযুক্তি
কক্সবাজারে রামু কিন্ডার গার্টেন এসোসিয়েশন মেধাবৃত্তি পরীক্ষার পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি রামু উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম বলেন, বৃত্তি মানে স্বীকৃতি, ‘বৃত্তি’কে অর্থ দিয়ে মূল্যায়ন করা যাবেনা। বৃত্তির মাধ্যমে শিশুর সম্ভাবনাময় প্রতিভার মূল্যায়ন হয়। আদর্শ জাতি গঠনে যুগ উপযোগী শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষাও অত্যাবশ্যক। নৈতিক ও আধুনিক শিক্ষার সমন্বয় ছাড়া শুধু মেধাবী কিংবা মেধা দিয়ে সুস্থ জাতি গঠন করা সম্ভব নয়। আর তাই ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই মেধা ও নৈতিকতার সমন্বয় ঘটাতে নিরলস প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যেতে হবে। নিজেকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করতে বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে আধুনিক ও প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষার্থীদের দেশীয় সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের শিক্ষা দিতে হবে। তিনি রামুকে শিক্ষা শহর হিসেবে গড়ে তুলতে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন এবং প্রতি বছর রামু কিন্ডার গার্টেন এসোসিয়েশনকে বৃত্তি পরীক্ষা চালুর রাখার জন্য আর্থিক অনুদান দেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন।
রবিবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এভারেষ্ট টিচিং ইনস্টিটিউটের হল রুমে কিন্ডার গার্টেন এসোসিয়েশনের সভাপতি, ফজল আম্বিয়া কেজি স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৃত্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মাঝে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানের তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
বিশেষ অতিথি ছিলেন রামুর বিশিষ্ট সমাজ সেবক, দানবীর, রামু উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষানুরাগী সদস্য গিয়াস উদ্দিন কোম্পানী, রামু এভারেষ্ট টিচিং ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ রাজু বড়–য়া, রামু আওয়ামীলীগ নেতা ও শিক্ষা কমিটির সদস্য মাসুদুর রহমান মাসুদ। এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এভারেষ্ট টিচিং ইনস্টিটিউটের সহকারি প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিৎ বড়–য়া, তেচ্ছিপুল কেজি স্কুলের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান, রামু ট্যালেন্টস স্কুলের সহকারি প্রধান শিক্ষক নুরুল আজিম, গোয়ালিয়া পালং কেজি স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ জোবাইর প্রমুখ। বিতরণ অনুষ্ঠানে উপজেলার ৯টি কেজি স্কুলের বৃত্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া ১১৬ জন মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকা, অভিভাবক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন এভারেষ্ট টিচিং ইনস্টিটিউটের সিনিয়র শিক্ষক পলাশ বড়–য়া।