শাদা বাঘশাবক দেখতে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় দর্শণার্থীদের ভিড়

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৮ সময় ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামের চিড়িয়াখানায় জন্ম নিয়েছে দেশের প্রথম সাদা বাঘশাবক। বিরল এই সাদা বাঘশাবক দেখতে প্রায় প্রতিদিনই উপচে পড়া ভিড় দর্শণার্থীদের। ভিন্ন রঙের বাঘ দেখে মুগ্ধতার আভা তাদের চোখে মুখে।

এখনও ৫৭ দিনও অতিবাহিত হয়নি, এর মধ্যেই পাকাপোক্ত নগরের চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বেঙ্গল টাইগার দম্পতি রাজ ও পরির ঘরে জন্ম নেওয়া শাবক দুটি। পাকাপোক্ত হবেই বা না কেনো, জন্ম নেওয়ার পর থেকে যে পরম যত্নে গড়ে তুলেছে রাজ ও পরি।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) চিড়িয়াখানায় গিয়ে দেখা যায়, রাজ ও পরি শাবক দুটিকে নানা কৌশল রপ্ত করা শেখাচ্ছে।দুই পা মাটিতে আর দুই পা উপরে রেখে শাবক ‍দুটি বুঝিয়ে দিচ্ছে আমরা পাকাপোক্ত।

সাদা বাঘটির কারণে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় দর্শক আকর্ষণ আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. শাহাদাত হোসেন।

শাহাদাত হোসেন বলেন, ”বাংলাদেশের কোনও চিড়িয়াখানা বা সাফারী পার্কে এ ধরনের সাদা বাঘ নেই। মা-বাবার জিনে স্বাভাবিক অবস্থার চেয়ে কিছুটা ভিন্নতার কারণে এ ধরনের প্রাণির জন্ম হয়। এ ধরনের সাদা বাঘ পার্শিয়াল ও ফুল পার্শিয়াল দুই ধরনের অ্যালবিনো হয়ে থাকে। আমাদের চিড়িয়াখানায় জন্ম নেয়া বাঘ শাবকটি ফুল পার্শিয়াল।”

শাবক দুটির মধ্যে একটি সাদার ওপর কালো ডোরাকাটা অন্যটি হলুদ। তবে ডোরকাটা নিয়ে অনেকের প্রশ্ন, কোনো শ্বেত রোগ হয়তো। কিন্তু প্রাণী বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটি কোনো রোগ নয়। বাংলাদেশে যে একসময় সাদা রংয়ের সঙ্গে কালো ডোরকাটার বাঘের বংশ ছিলো সেটির পরিচায়ক এটি। এতোদিন বাংলাদেশে বংশটির জিন সুপ্ত অবস্থায় ছিল।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মনজুরুল কিবরীয়া বলেন, যেকোনো প্রাণীর ক্ষেত্রে এরকম সাদার ওপর কালো ডোরকাটা থাকতে পারে। সাদা রং ও ডোরাকাটা দাগ থাকলে বুঝতে হবে এটি জিনগত কারণ। একসময় এদের পূর্ব পুরুষ হয়তো কেউ সাদা ছিল।

রুহুল আমিন জানান, ১৯ জুলাই চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় এই বাঘশাবক দুটির জন্ম হয়। আরও একটি বাঘশাবক জন্ম হয়েছিল। কিন্তু বাচ্চাটি জন্মের পরদিন মারা যায়।