শহীদদের শ্রদ্ধায় সারাদেশে বিজয় উৎসব

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৬ ডিসেম্বর , ২০১৪ সময় ০৮:৫৫ অপরাহ্ণ

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সারাদেশে পালিত হচ্ছে মহান বিজয় দিবস। দিবসটি উপলক্ষ্যে প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নেয়া হয়েছে নানা কর্মসূচি। আমাদের প্রতিবেদকদের পাঠানো তথ্য ও ছবিতে বিজয় দিবসের খবর-

রাজশাহী: মহান বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে মহানগরীর শহীদ মিনারগুলোতে মানুষের ঢল নামে। বৃদ্ধ থেকে যুবা, পৌঢ় থেকে শিশু সর্বস্তরের প্রগতিশীল সাহিত্য-সংস্কৃতিকর্মী রাজনীতিবিদ সমাজকর্মীসহ পুরো রাজশাহীর আপামর জনগণের পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে হৃদয়ের গভীর থেকে বিনম্র শ্রদ্ধা জানান মাতৃভূমির জন্য প্রাণ উৎসর্গ করা বীর সন্তানদের।

রাত ১২টা এক মিনিটে মহানগরীর ভুবনমোহন পার্ক, রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনারসহ অন্য শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করে বিভিন্ন সংগঠন। ভুবনমোহন পার্কে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, তার সঙ্গে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি রাজশাহী মহানগর ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।

নারায়ণগঞ্জ: বিনম্র শ্রদ্ধায় রাত ১২টা ১ মিনিটে শহরের চাষাঢ়া বিজয় স্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জে পালিত হচ্ছে মহান বিজয় দিবস। রাতের প্রথম প্রহরে শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান মিঞা। এরপর পর্যায় ক্রমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিন ও নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান।

দিবস উপলক্ষ্যে চাষাঢ়া বিজয় স্তম্ভকে প্রথমবারের মত সাজানো হয়েছে নব বধূর সাজে। বিজয় স্তম্ভ, শহীদ জিয়া হল, নারায়ণগঞ্জ রাইফেল ক্লাব, সান্তনা মার্কে ও মার্ক টাওয়ার জুড়ে লাল সবুজ বাতিতে রাঙানো হয়েছে। শহর জুড়ে সাঁটানো হয়েছে ৭১’র মুক্তিযুদ্ধ ও ৫২’র ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন চিত্রের ডিজিটাল ব্যানার ও ফেস্টুন। সেই সঙ্গে রয়েছে চিত্রাংকন করা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বাংলাদেশের মানচিত্র ও লাল সবুজের পতাকার ছবি।

রাতের প্রথম প্রহর ১২টা ১ মিনিটে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করা হয় তোপধ্বনি ও আতশবাজির ঝলকানি। শ্রদ্ধা নিবেদনের পর হাজারো জনতার মাঝে বিজয়ের আনন্দ ছড়িয়ে দিতে শুরু হয় সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান।

কুষ্টিয়া: বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে ৩১ বার তোপোধ্বনির মধ্য দিয়ে ৪৪তম মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। রাত ১২টা ১ মিনিটে কুষ্টিয়া কালেক্টরেট চত্বরের কেন্দ্রীয় স্মৃতিস্তম্ভে ৩১বার তোপোধ্বনির মধ্য দিয়ে শহীদদের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা আওয়ামী লীগের নেতারাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতি ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

কুমিল্লা: জেলায় ৪৪তম মহান বিজয় দিবসে পরিকল্পনা ও রেলমন্ত্রী ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। দিবসটি উপলক্ষে সকালে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিব, কুমিল্লা সদর আসনের এমপি হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, জেলা পরিষদের প্রশাসক আলহাজ ওমর ফারুক, কুমিল্লা সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কু, জেলা প্রশাসক মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল, পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

টাঙ্গাইল: নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে টাঙ্গাইলে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হয়। সকালে জেলা প্রশাসশনের পক্ষ থেকে শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আহম্মেদ আযম পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

বরিশাল: যথাযোগ্য মর্যাদা ও শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হচ্ছে। সূর্যোদয়ের আগে পুলিশ লাইনে ৩১ বার তোপোধ্বনীর মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। তবে প্রহরের প্রথম ভাগে রাত ১২টা ১ মিনিটে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন বিভিন্ন সংগঠন।

চুয়াডাঙ্গা: যথাযথ মর্যাদা ও বিভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে ৪৪তম মহান বিজয় দিবস। দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে ৬টায় শহীদ স্মৃতিফলকে ফুলের মালা দেন জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন। এরপর সকাল ৮টায় চুয়াডাঙ্গা স্টেডিয়াম মাঠে বিজয় দিবস উপলক্ষে এক কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের শিশুরা মনোমুগ্ধকর ডিসপ্লে প্রদর্শন করে।

মাদারীপুর: যথাযোগ্য মর্যাদায় মাদারীপুরে পালিত হয়েছে মহান বিজয় দিবস। সোমবার রাত ১২টা ১মিনিটে ৩১ বার তোপোধ্বনির মধ্য দিয়ে বিজয় দিবসের সকালে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। মাদারীপুর ‘শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি নামফলক’ এ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ সর্বস্তরের মানুষ।

নোয়াখালী: প্রথম প্রহর রাত ১২টা ১ মিনিটে নোয়াখালীর কেন্দ্রীয় শহীদ বেদিতে ফুলের মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছিন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। নোয়াখালী জেলার পক্ষে জেলা প্রশাসক বদরে মুনীর ফেরদৌস, জেলা পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ ফুলেল শ্রদ্ধা জানান। পরবর্তীতে জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা বিএনপি ও অংঙ্গ সংগঠন, গণজাগরণ মঞ্চ, নোয়াখালী প্রেসক্লাব, এপেক্স ক্লাবসহ শতাধিক সামাজিক, সাংষ্কৃতিক এবং রাজনৈতিক সংগঠন শহীদ মিনারে ফুলের মালা দেন।

কুড়িগ্রাম: ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ভারতীয় ছিটমহলগুলোতে মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ১১১টি ছিট মহলের অধিবাসীরা একযোগে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করে। এ উপলক্ষ্যে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার দাসিয়ার ছড়া ছিট মহলে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে দিবসটির সূচনা করা হয়। পরে শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোসহ দিনব্যাপী কর্মসূচি পালন করছে ছিটমহলের বাসিন্দারা।