শফিউল্লাহ’র বিরুদ্ধে জঙ্গী সম্পৃক্ততার অভিযোগ ভিত্তিহীন

প্রকাশ:| রবিবার, ৭ আগস্ট , ২০১৬ সময় ০৮:৩৫ অপরাহ্ণ

আ’লীগ বান্দরবান
বান্দরবান প্রতিনিধি ॥
বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের দাবী, আওয়ামীলীগ নেতা ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সন্ত্রাস বিরোধী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মো: শফিউল্লাহ’র বিরুদ্ধে জঙ্গী সম্পৃক্ততার অভিযোগ ভিত্তিহীন। জামায়াত ইসলামের নেতৃবৃন্দরা ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যাচার করে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক শিক্ষা ও মানবসম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক শফিউল্লাহ’কে হয়রানী করা হচ্ছে। আজ রোববার দুপুরে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলের শীর্ষ নেতারা এ দাবী করেন।
এসময় সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও জঙ্গি সন্ত্রাস বিরোধী জেলা কমিটির সভাপতি আবদুর রহিম চেীধুরী, সদস্য সচিব আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতা একে এম জাহাঙ্গির, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক লক্ষি পদ দাশ, মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী জোহরা বেগম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হ্লা থোয়াই হ্লী মারমা, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতা অধ্যাপক মো: শফিউল্লাহ’সহ সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদ সম্মেলনে শফিউল্লাহ্ বলেন, যারা রামু বৌদ্ধ মন্দিরে হামলার ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত তারাই আওয়ামীলীগ বিরোধী চক্রান্তে জড়িত। এদের ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে গিয়ে রোহিঙ্গা ও জঙ্গি গোষ্ঠির মদদদাতা হিসেবে আমাকে চিহ্নিত করার অপচেষ্টা করা হচ্ছে। পত্র পত্রিকা এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমে ভুল তথ্য দিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ দেয়া হয়েছে। গনমাধ্যমকর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে শফিউল্লাহ্ বলেন, জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল, কিন্তু সেই ঘটনায় তার সম্পৃক্ততা না থাকার বিষয়টি প্রমানিত হওয়ার পর তাকে অভিযোগ থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে। জামাত ইসলামীর চক্রটি আওয়ামীলীগে অন্তকোলহ সৃষ্টি করে চলমান সন্ত্রাস ও জঙ্গি বিরোধী কার্যক্রম বাধাগ্রস্থ করার অপচেষ্ঠা চালাচ্ছে। আরেক প্রশ্নের জবাবে শফিউল্লাহ্ বলেন, তিনি নাইক্ষ্যংছড়ি হাজী এমএ কালাম ডিগ্রি কলেজে অবৈতনিক শিক্ষক (প্রভাষক) হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। কলেজটি সম্প্রতি সরকারীকরণ করা হয়েছে। রাজনীতি করার পরও কিভাবে সরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকরী করেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কলেজটি পূর্নাঙ্গ সরকারী করণ এখনো হয়নি। এটি হলে তিনি চাকরী ছেড়ে দিবেন। রোহিঙ্গা ও কোন জঙ্গি গোষ্ঠির সাথে তিনি সম্পৃক্ত নন বলে দাবী করেছেন।
জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক লক্ষি পদ দাশ বলেন, আওয়ামীলীগ নেতার মিথ্যা অপপ্রচারকারী ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে অইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। আওয়ামীলীগ নেতা শফিউল্লাহ একজন প্রতিষ্টিত ব্যবসায়ী। নাইক্ষ্যংছড়িতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সমাজসেবায় তার অবদান রয়েছে। তিনি আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান নির্বাচন করেছেন।


আরোও সংবাদ