শওকত মাহমুদের গ্রেফতার স্বাধীন গনমাধ্যম ও গনতন্ত্রের উপর কুঠারাঘাত

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৮ আগস্ট , ২০১৫ সময় ১১:২৯ অপরাহ্ণ

সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতারের মাধ্যমে সরকার মূলত দুর্নীতি ,জুলুম-অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারীদের কণ্ঠরোধ করতে চায়। জনগনের সাংবিধানিক, মৌলিক মানবাধিকার হরন এবং ভয়-আতংক সৃস্টির মাধ্যমে বিরুদ্ধ মত দমন করে একটি অগনতান্ত্রিক ও একতরফা শাসন প্রলম্বিত করতে অপচেস্টা করছে। শওকত মাহমুদকে গ্রেফতার করে সরকার মূলত: গনতন্ত্র ও স্বাধীন গনমাধ্যমের উপর কুঠারাঘাত করেছে।
শওকত মাহমুদের গ্রেফতার স্বাধীন গনমাধ্যম ও গনতন্ত্রের উপর কুঠারাঘাত
বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের ( বিএফইউজে) সভাপতি , জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও পেশাজীবী নেতা শওকত মাহমুদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, গ্রেফতারের প্রতিবাদ এবং নি:শর্ত মুক্তির দাবীতে শুক্রবার ( ২৮ আগস্ট) বিকালে অনুষ্ঠিত পেশাজীবীদের প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তাগন এসব কথা বলেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, হামলা, গুম, খুন আর মিথ্যা মামলার মাধ্যমে রাজনীতিবিদদের উপর জুলুম অত্যাচারের পর বিরুদ্ধ মতের পেশাজীবিদের জেল-জুলুম চরিত্র হননের মাধ্যমে হেনস্থা করা শুরু হয়েছে। সরকারী বলয়ভূক্ত সাংবাদিক-পেশাজীবিদের পদ-পদবী , দয়া-দাক্ষিন্য বিলি-বন্টনের মাধ্যমে একদিকে দুর্নীতি-জুলুম চেপে রাখার কৌশল নিয়েছে অন্যদিকে সরকারের অন্যায্য দাক্ষিন্যের লোভ উপেক্ষা করে যারা সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে যারা কথা বলছে তাদের নানাভাবে হয়রানী করছে।

বক্তারা বলেন, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকান্ডের বিচার ধামচাপা দেয়া, দৈনিক আমার দেশ, চ্যানেল ওয়ান, ইসলামিক ও দিগন্ত টিভি বন্ধ করে রাখা , মাহমুদুর রহমান- শওকত মাহমুদদের কারা প্রকোষ্ঠে আটকে রাখার মাধ্যমে নিজেদের গনতন্ত্রী ও গনমাধ্যম-বান্ধব মেকী ইমেজ প্রতিষ্টার যত চেস্টাই করা হোক না কেন , জনগনের সামনে সরকারের এ দ্বিমূখি চেহারা এখন আরো বেশী পরিস্কার হয়ে উঠছে। সমাবেশে শওকত মাহমুদ, মাহমুদুর রহমানের আশু মুক্তি দাবী করে বলা হয়, পেশাজীবীদের হয়রানীর প্রতিবাদে গড়ে উঠা আন্দোলন শুধু দেশে নয়, আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলেও ছড়িয়ে পড়ছে।

নগরীর নুর আহমদ সড়কস্থ সিএমইউজে মিলনায়তনে বিশিস্ট আইনজীবি এডভোকেট কফিল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশিস্ট চিকিৎসক নেতা ও রাজনীতিবিদ ডা. শাহাদাত হোসেন, পেশাজীবি পরিষদ নেতৃবৃন্দের মধ্যে এডভোকেট ইফতেখার হোসেন চৌধুরী মহসিন, প্রকৌশলী কে এম সুফিয়ান, জাহিদুল করিম কচি , শামসুল হক হায়দরী, মোহাম্মদ শাহনওয়াজ, ডা. রকিবুল্লাহ, শহিদুল ইসলাম, কামরুল হুদা, সালেহ নোমান, সাইফুল ইসলাম শিল্পী ও মোহাম্মদ হোছাইন বক্তব্য রাখেন।