লাথিতে সাত মাসের অন্তঃসত্বা মহিলার মৃত্যু সন্তান প্রসব

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৭ মে , ২০১৬ সময় ১০:১৪ অপরাহ্ণ



পটিয়া প্রতিনিধি॥
মহিলার মৃত্যু সন্তান প্রসবপটিয়া উপজেলার শাহমীরপুর গ্রামের নৌকা প্রার্থী দিদারুল আলমমের কর্মী সমর্থকদের বাড়ীতে প্রতিপক্ষ বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ শাহজাহানাদের লোকজনের হামলায় প্রায় ১৫জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে হামলাকারীদের লাথিতে ফাতেমা বেগম নামের এক সাত মাসের গর্ভবতী মহিলা মৃত্যু সন্তান প্রসব করে। শৃক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টায় উপজেলার বড় ওঠান ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড দক্ষিণ শাহমীরপুর হাজী আবদুস সোবহানের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় গুরুত্বর আহতরা হলেন আমির হোসেন (৩৫), অন্তঃসত্বা স্ত্রী ফাতেমা (৩০), আবদুস ছবুর (৬০), আবদুর শুক্কুর (৪০), জোহরা খাতুন (৫৫), আয়শা বেগম (৪৫), লাকী আকতার(১৬), নুর জাহান(২৮), মোঃ রহিম(২৬), শাহজাহান (৩৫), ইমরান(২৬), আরিফুল(১৭) তাদের চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এলাকাবাসী জানান হামলাকারী আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ শাহাজাহানের নেতৃত্বে তার চাচাত ভাই জয়নাল, সেলিম, মনির, আবছার, মিজান, এমরান, ইলিয়াছ, আরিফ, তাহেরসহ অজ্ঞাতনামা ৫০/৬০জন এ হামলায় অংশ নেয়। চেয়ারম্যান প্রার্থী দিদারুল আলমসহ প্রত্যক্ষ দর্শীরা জানায় বিকাল ৩টার দিকে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাহান চৌধুরী ও আবদুল মান্নান সমর্থকেরা শাহমিরপুর গ্রামের ছোবহান হাজীর বাড়িতে দিদারের সমর্থক আমির হোসেনের ঘরে ১০/১২জন লোক তাকে মারধর করে। এ সময় তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম তাকে রক্ষা করতে গেলে হামলাকারীরা তার স্ত্রীকে পেটে লাথি মারলে তার ৭মাসের গর্ভের সন্তান ভূমিষ্ট হয়ে মারা যায়। এ সময় আরো ৮/১০জন আহত হয়। খবর পেয়ে কর্ণফুলী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মৃত ভূমিষ্ট সন্তানকে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে কর্ণফুলী থানায় মামলা দায়ের করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। স্থানীয় সমর্থকেরা হামলাকারী শাহজাহান চৌধুরী ও আবদুল মান্নানকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার না করলে তারা নির্বাচন বর্জন করবে বলে ঘোষণা দেয়।