রীতিমত অবিশ্বাস্য! অসাধারণ!!

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৩ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ০৯:০৪ অপরাহ্ণ

রীতিমত অবিশ্বাস্য! অসাধারণ!!রীতিমত অবিশ্বাস্য! অসাধারণ!! স্বপ্নেও যা কল্পনা করা সম্ভব নয়!!! কী বিশেষণে বিশেষায়িত করা যায় রোহিত শর্মার এই ইনিংসটিকে? ওয়ানডে ক্রিকেটে ব্যক্তিগত সংগ্রহ ২৬৪ রান! এও কি সম্ভব?

চোখ কপালে তোলার মতোই বিস্ময়কর কাণ্ড গড়ে ফেলেছেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। ইডেন গার্ডেনে যারা ভারত-শ্রীলংকার চতুর্থ ওয়ানডেটি দেখতে এসেছিল, কিংবা যারা বসেছিল টিভির সামনে, সবার কাছে স্বপ্নই মনে হচ্ছে রোহিতের অতিমানবীয় ইনিংসটিকে। বিস্ময়ে অভিভূত হয়ে সবাই ভাবছে, ৫০ ওভারের ক্রিকেটে এও কি সম্ভব! টিভি হাইলাইটসেও তো এত বিধ্বংসী ব্যাটিং দেখা যায় না কখনও! তার চেয়েও বেশি কিছু।

কলকাতায় আবার বইছে ফুটবলের জোয়ার। আইএসএলের খেলা উপলক্ষে যুব ভারতীতেও রমরমা অবস্থা। বড় কথা, আইএসএল ধাক্কায় ইডেনে ভারত আর শ্রীলংকার চতুর্থ ওয়ানডে নিয়ে তেমন কোন আগ্রহই ছিল না কলকাতাবাসীর। মূলতঃ অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজদের যাচ্ছেতাই পারফরমেন্স হতাশ করেছে ভারতীয়দের। কিন্তু যে ঝড় তুলে বিরাট কোহলি বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন, তাতে কলকাতার মানুষদের আক্ষেপেই পুড়তে হবে। নিজ চোখে যে, এমন অসাধারণ কীর্তি সরাসরি দেখা থেকে বঞ্চিত হতে হলো তাদেরকে!

রোহিতের ব্যাটিং দেখতে রীতিমত দর্শক বনে গিয়েছিল বিরাট কোহলিরাও। লংকানদের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাট করতে নামার পর থেকেই ব্যাটকে তলোয়ার বানিয়ে ফেলেন রোহিত। কুলাসেকারা-মেন্ডিসদের পরিণত করলেন গলির বোলারে।
১৫০ রান পূর্ণ হওয়ার পর এভাবেই লাফিয়ে উঠেছিলেন রোহিত রোহিত শর্মার অবিশ্বাস্য বিশ্বরেকর্ড

একের পর এক বাউন্ডারির বাইরে আছড়ে ফেলতে থাকেন তাদেরকে। ১৭৩ বলে ২৬৪ রান করার পথে মোট ৪২ বার বাউন্ডারির বাইরে বল পাঠিয়েছেন রোহিত। এর মধ্যে ৩৩টি ছিল চার আর ৯টি ছক্কার মার। ইনিংসের শেষ বলে কুলাসেকারার বলে জয়াবর্ধনের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন তিনি।

সবচেয়ে চেয়ে অবিশ্বাস্য ব্যাপার হলো, ওয়ানডে ক্রিকেটে এখনও পর্যন্ত মোট চারটি ডাবল সেঞ্চুরি কিংবা তার বেশি ইনিংস রয়েছে এবং এর সবগুলোই ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের গড়া রেকর্ড। শুধু তাই নয়, চারটি ইনিংসই হয়েছে ভারতের মাটিতে। একা রোহিত শর্মাই দু’বার পার হয়েছেন ২০০ রানের গন্ডি।

এর আগে ২০১৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাঙ্গালোরে ২০৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন রোহিত। ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ২১৯ রানের রেকর্ড ছিল আরেক ভারতীয় ওপেনার বিরেন্দর শেবাগের। ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইন্দোরে ওই রেকর্ডটি গড়েছিলেন বীরু। ওয়ানডের ইতিহাসে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি গড়েছিলেন আরেক ভারতীয় কিংবদন্তী শচীন টেন্ডুলকার। ২০১০ সালে গোয়ালিয়রে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অপরাজিত ২০০ রান করেন তিনি।

রোহিত কীর্তিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে ৫ উইকেটে ৪০৪ রান করেছে ভারত। ওয়ানডে ইতিহাসে এ নিয়ে পঞ্চমবারেরমত দলীয় স্কোর ৪০০ রান কিংবা এর বেশি সংগ্রহ করল ভারত। অন্য কোন দল এমন কীর্তি আর গড়তে পারেনি। সর্বোচ্চ ২বার ৪০০ রান কিংবা তার বেশি করেছে কেবল দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলংকা।