রিফাত বিন সাত্তার

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ২৫ জুলাই , ২০১৮ সময় ১০:০৭ পূর্বাহ্ণ

রিফাত বিন সাত্তার। একজন বাংলাদেশী দাবাড়ু। তিনি ১৯৭৪ সালের ২৫ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন। দাবায় বাংলাদেশের তৃতীয় গ্র্যান্ডমাস্টার তিনি। রিফাত বিন সাত্তারের আগে দাবায় আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার খেতাব পেয়েছেন নিয়াজ মোর্শেদ ও জিয়াউর রহমান।

১৯৮৭ সালে জাতীয় দাবায় অভিষেক হয় রিফাতের। ১৯৮৯ সালে সুযোগ পাননি। পরের বছর খেলেননি এসএসসি পরীক্ষার জন্য। ১৯৯১ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে একবারও জাতীয় দাবায় অংশগ্রহণ করেননি। ১৯৯৭ সালে জন্ডিসের কারণে খেলতে পারেননি। ১৯৯৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত দেশের হয়ে সাতবার চেস অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ রিফাত।

রিফাত বিন সাত্তার আন্তর্জাতিক মাস্টার খেতাব পান ১৯৯৩ সালে। ২০০৬ সালে ফিদে রেটিং ২৫০০ অতিক্রম করলে আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার খেতাব অর্জন করেন। তার অর্জন করা তিনটি নর্মই ঢাকায় অনুষ্ঠিত দাবা প্রতিযোগিতায় অর্জিত। ২০১২ সালের পর থেকে তিনি অনিয়মিত খেলছেন। জাতীয় দাবায় না থাকার কারণ সম্পর্কে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ২০১১ সালে আমিই একমাত্র গ্র্যান্ডমাস্টার হিসেবে খেলেছি এই প্রতিযোগিতায়। অফিসের কাছে খেলার সুযোগ চাইলে বরাবরই পেয়ে এসেছি। তবে এ মুহূর্তে অফিসের কাজের চাপ অনেক বেশি। তাই সব দিক ভেবেই না খেলার সিদ্ধান্ত।

এই দাবাড়ু ২০১৪ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত এশিয়ান ক্লাব কাপ চ্যাম্পিয়ানশিপে অংশ নেন।

১৯৯৩ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত রিফাত বিন সাত্তার ১৭০টির বেশি খেলায় অংশ নেন। তার সর্বশেষ ফিদে রেটিং ২৪৪৯। ওভারঅল রেকর্ড +৫৯-৭২=৪০ (৪৬.২%)। তার অংশ নেওয়া উল্লেখযোগ্য টুর্নামেন্ট হল— ব্লিড অলিম্পিয়ার্ড (২০০২), ৬ষ্ট ইউনাইটেড ইন্সুরেন্স (২০০৩), এশিয়ান চেস চ্যাম্পিয়নশিপ (২০০৫), বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ (২০০৬), ৩৭তম চেস অলিম্পিয়াড (২০০৭) ও চেস অলিম্পিয়াড (২০১২)।

১৫ বছর ধরে সেভ দ্য চিলড্রেন, ইউনিসেফ ও প্ল্যানের মতো বিভিন্ন আন্তর্জাতিক এনজিওতে কাজ করছেন। রিফাত বিন সাত্তার বর্তমানে অ্যাকশন এইডে পরিচালক পদে দায়িত্ব পালন করছেন।