‘রাষ্ট্রের চরিত্র পরিবর্তন না হলে ত্বকী হত্যার বিচার হবে না’

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৭ মার্চ , ২০১৪ সময় ১১:৪৭ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শুধু নিজের স্বজন হারানোর ব্যথাই বোঝেন অন্যেরটা নয় বলে মন্তব্য করেছেন নারায়গঞ্জের মেধাবী ছাত্র নিহত ত্বকীর পিতা রফিউর রাব্বি। আজ বিকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে নিহত ত্বকীকে নিয়ে ‘জনান্তিকে ত্বকী’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, স্বজন হারানোর ব্যথা প্রধানমন্ত্রী বোঝেন, তবে শুধু নিজেরটা। এটি অন্যায়। দেশের মানুষ এ অন্যায়-অপরাধের হিসাব কড়ায়-গণ্ডায় আদায় করে নেবে। ত্বকী হত্যার বিচার নিয়ে হতাশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, রাষ্ট্রের চরিত্র পরিবর্তন না হলে ত্বকী হত্যার বিচার হবে না। রাষ্ট্রের চরিত্র বদল করতে হবে। রাষ্ট্রকে মানবিক হতে হবে।
ত্বকী হত্যার এক বছর পূর্তিতে ‘সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চ’ আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, কামাল লোহানী ও ড. সফিউদ্দিন আহমদ। অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, রাজনৈতিক প্রভাব আর দলীয় সংকীর্ণতার কারণে ত্বকী হত্যার বিচার হয়নি। তবে স্বজন হারানোর ব্যথা প্রধানমন্ত্রী বোঝেন। আমরা এখনও আশা করি, তিনি দ্রুত এ হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচারের ব্যবস্থা করবেন। একই প্রসঙ্গে রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে অসুস্থ বলে দাবি করে অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন,গোটা রাষ্ট্র ব্যবস্থা অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এখানে অপরাধীরা দম্ভোক্তি করে। তখন আমাদের বুঝতে হবে- এ রাষ্ট্র ব্যবস্থা কেমন। এভাবে রাষ্ট্র চলতে পারে না। পরিবর্তন করতে হবে। ত্বকী হত্যার বিচার এবং ভবিষ্যতে যাতে কোন ত্বকীকে হারাতে না হয় এজন্য। সরকার কী চাইছে তা পরিষ্কার নয় মন্তব্য করে কামাল লোহানী বলেন, একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রে ত্বকীদের হত্যা এবং হত্যাকারীদের দম্ভোক্তি কাম্য ছিল না। দুর্ভাগ্য আমাদের স্বাধীনতার এত বছর পর আমাদের রাষ্ট্রের এ অবস্থা দেখতে হচ্ছে। এ সরকার কি চাইছে- তা পরিষ্কার নয়।