রাশেদ মাহমুদ

প্রকাশ:| সোমবার, ২১ ডিসেম্বর , ২০১৫ সময় ১১:২৯ অপরাহ্ণ

শুভ জন্মদিন
রাশেদ মাহমুদ

r m 1রাশেদ মাহমুদ যার হাতের ছোয়ায় চবি হয়ে উঠে প্রাণবন্ত কবিতা। পরিচিতি রাশেদ মাহমুদ হিসেবে মূল নাম এ আর বি মাহমুদ পিতা- মরহুম সুলতান মাহমুদ তিনি ছিলেন ফটিকছড়ির দৌলতপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান। মা : মরহুমা হোসনে আরা বেগম। রাশেদ মাহমুদের আদি নিবাস : আবদুল হামিদ চৌধুরী বাড়ি (বর্তমানে জামাল মন্ত্রীর বাড়ি নামেও পরিচিত), দৌলতপুর, ফটিকছড়ি, চট্টগ্রাম । দাদা : মৌলানা মোহাম্মদ ইসমাইল। নানা : বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মৌলানা ছালামত উল্লাহ, রাউজানের সুলতানপুরে নানার নামে রয়েছে মৌলানা ছালামত উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়। শহরের বাড়ি : ১৩ কাতালগঞ্জ আবাসিক এলাকা, পাঁচলাইশ, চট্টগ্রাম।
জন্ম আন্দরকিল্লা মেটারনিটি হাসপাতালে ২১ জিসেম্বর ১৯৬৬ (বর্তমান নাম জেমিসন রেডক্রিসেন্ট মাতৃসদন হাসপাতাল)। বেড়ে ওঠা- চট্টগ্রাম শহরের পৈত্রিক নিবাস কাতালগঞ্জ আবাসিক এলাকায়। হাতে খড়ি- চট্টগ্রাম কিন্ডার গার্টেন স্কুল। কৈশোরেই ছবি তোলা ও লেখালেখি শুরু। মামার ইয়াশিকা ইলেকট্রো ৩৫ ক্যামরা দিয়ে প্রথম ছবি তোলা। এলাকায় ‘অবসর’ ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নামে ক্লাব প্রতিষ্ঠা। ক্লাবটি ১৯৮০ সালে সিজেকেএস পরিচালিত স্টার যুব ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন ও পরবর্তীতে রানার্স আপ হয়। ১৯৮০ সালেই এই ক্লাব থেকে আমার সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় লিটল ম্যাগাজিন ‘শামা’। পত্রিকাটির পরবর্তী সংখ্যাগুলো দুই বাংলায় আলোচিত হয়। ১৯৮৫ সালের ৭ এপ্রিল সে সময়ের বহুল পরিচিত ঢাকার বিশিষ্ট লেখক প্রকাশক গাজী শাহাবুদ্দীন আহমেদ সম্পাদিত ‘সচিত্র সন্ধানী’ পত্রিকার বাংলা বর্ষ শেষ সংখ্যায় প্রখ্যাত শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরীর অলংকরনে প্রকাশিত হয় গল্প ‘রং বদল’। এর আগে ও পরে দুইবাংলার বিভিন্ন পত্রিকা ও লিটল ম্যাগে বেশ কিছু গল্প ছাপা হয়। ১৯৮৯ সালে ‘চট্টগ্রাম ললিতকলা একাডেমি’ নামে সংগীত, নৃত্য ও চারুকলার স্কুল প্রতিষ্ঠা। যা অল্পদিনে চট্টগ্রামে ব্যাপক পরিচিতি পায়। শিক্ষাজীবনের পাশিাপাশি চলতে থাকে কর্মজীবনও। স্নাতক পাশ করার পর বাংলায় ¯স্নাতোকোত্তর পর্ব (এম.এ.) সারার জন্যে ১৯৮৭সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি। ১৯৮৯ সালে ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডে উন্নয়ন কর্মকর্তা হিসেবে চাকুরি। ১৯৯২ সালে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকে যোগদান। ৫বছর পর ১৯৯৭ সালে কবি সাংবাদিক আবুল মোমেনের হাত ধরে ব্যাংকার পেশার ইতি টেনে ফটো সাংবাদিক হিসেবে ভোরের কাগজে যোগ দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু। রাশেদ মাহমুদ চট্টগ্রাম ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) হতিহাসে রেকর্ড সংখ্যক সর্বাধিক ভোট পেয়ে নির্বাহী কমিটির সদস্য নির্বাচিত ।

জন্মদিনে রাশেদ মাহমুদকে অনেক অনেক অভিনন্দন ও ভালোবাসা।

ঘোষণা: দেশের বিশিষ্টজন, বুদ্ধিজীবি/বরেণ্য সাংবাদিকদের পাশাপাশি চট্টগ্রামের সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যমে কর্মরতদের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়ে তাঁদের সংক্ষিপ্ত জীবনী তুলে ধরার সিন্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রামের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজচিটাগাং২৪.কম। এ প্রেক্ষিতে আমরা ‘জন্মদিন’ নামের নতুন একটি বিভাগ চালু করেছি। এই বিভাগে আপনিও লেখা-তথ্য পাঠাতে পারেন। লেখা ও তথ্য পাঠানোর ঠিকানা: infocn24@gmail.com