রানা প্লাজা ট্র্র্যাজেডিতে নিহতদের স্মরণ

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৪ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ০৮:৪২ অপরাহ্ণ

রানা প্লাজা ট্র্র্যাজেডিতে নিহতদের স্মরণেরানা প্লাজা ট্র্র্যাজেডিতে নিহতদের স্মরণে ও আহতদের স্বাভাবিক সুস্থতা কামনায় সম্মিলিত মে দিবস উদ্যাপন পরিষদের উদ্যোগে নগরীর কদম মোবারক ইসলামাবাদী মেমোরিয়াল হল মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। সাবেক শ্রমিক নেতা মো. আবদুর রহিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তাগন বলেন, সরকার নিহত ও আহতদের মধ্যে পর্যায়ক্রমে ২২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ সহ অন্যান্য আনুসাঙ্গিক ক্ষুতিপূরণ দিলেও বিজিএমইএ‘র প্রতিশ্রুতি নিহতদের ১ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ ও আহতদের আজীন পূণবাসনের প্রতিশ্রুতি পালন না করে অমানবিক আচর করেছে। সরকার রানা প্লাজার স্বত্তাধিকারীকে গ্রেফতার করলেও গত এক বছরে তার বিচারের উল্লেখ্যযোগ্য অগ্রগতি হয়নি। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গার্মেন্টস মালিকরা আইএলও কনভেশন অনুযায়ী শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা ও নিরাপত্তা দিতে গড়িমসি করে থাকে। এর বিরুদ্ধে সরকার যথাযত পদক্ষেপ না নিলে পোশাক শিল্প খাতে শ্রম ও অসন্তোষ বাড়বে। এর প্রভাব পরবে বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের ক্ষেত্রে। বক্তাগন বাংলাদেশের সকল সেক্টরের শ্রমিক ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সরকার ও শিল্প মালিকদের প্রতি দাবি জানান। সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ জেলা জাতয়ি শ্রমিক লীগের সভাপতি আবদুল হাকিম, সিটি কর্পোরেশন শ্রমিক কর্মচারী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব দোস্ত মহাম্মদ, সম্মিলিত মে দিবস উদ্যাপন পরিষদের প্রধান সমন্বয় কারী খোরশেদ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইয়াছিন চৌধুরী, শ্রমিক সংস্থার সভাপতি মনু মিয়া, সাধারণ সম্পাদক কানু লাল নাথ, মো. নাজিম উদ্দিন, সাইফুল ইসলাম, জাহিদুল আলম চৌধুরী, মো. আলমগীর, গোলাম মোস্তাফা, ফয়েজ আহমদ, মহিউদ্দিন, মো. আসলাম, মো. ফরিদ আহমদ প্রমুখ। আলোচনা শেষে রানা প্লাজায় নিহত শ্রমিকদের স্মরণে আত্মার মাগফেরাত কামনা করে এবং আহতদের সুস্থতা কামনা করে মিলাদ, দোয়া মাহফিল ও মহান সৃষ্টিকর্তার দরবারে মোনাজাত করা হয়।


আরোও সংবাদ