রাত ৮টা থেকে পতেঙ্গা সীবিচে দর্শনার্থীদের অবস্থান নিষিদ্ধ রয়েছে

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৩১ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ০৯:১৯ অপরাহ্ণ

রাত ৮টা থেকে পতেঙ্গা সীবিচে দর্শনার্থীদের অবস্থান নিষিদ্ধ রয়েছে। বিকেল ৫টার পর থেকে ওই এলাকায় যান চলাচলে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে।

নগর পুলিশের উপকমিশনার (সদর) মাসুদ-উল হাসান বলেন, ‘থার্টি ফার্স্ট নাইটকে উৎসবের নামে চলমান অস্থিরতাকে কাজে লাগিয়ে নাশকতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এজন্য নগরজুড়ে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বিশেষ করে পতেঙ্গা এলাকায় রাষ্ট্রীয় ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোয় বিশেষ নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে। এছাড়া সন্ধ্যার পর থেকে নগরজুড়ে ব্যাপক তল্লাশি করা হচ্ছে।’

এদিকে নগরীর বড় হোটেল ও রেস্টুরেন্ট ছাড়া অন্য কোনো স্থানে ও খোলা জায়গায় থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনের অনুমতি দেয়া হয়নি বলেও জানান তিনি।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিরোধী দলের অবরোধ, গণতন্ত্রের অভিযাত্রাসহ বিভিন্ন কর্মসূচিকে ঘিরে নগরীর বিভিন্ন স্পটে প্রায় এক হাজার অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন আছে। পাশাপাশি থার্টি ফার্স্ট নাইট উপলক্ষে মঙ্গলবার বিকেল থেকে অতিরিক্ত আরো এক হাজার পুলিশ কাজ করছে। মোতায়েন আছে সাড়ে তিনশ র‌্যাব সদস্য।

সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশের কমপক্ষে আটটি ভ্রাম্যমাণ টহল টিমও কাজ করছে। নগরীর অর্ধশতাধিক স্পটে বিকেল থেকে তল্লাশি শুরু হয়েছে। ১৫টি স্পটে চেকপোস্ট বসিয়ে মোটরসাইকেল আরোহীদের বিশেষভাবে তল্লাশি করা হচ্ছে। বিকেল থেকে সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ পৃথকভাবে নগরজুড়ে টহল দিচ্ছে।

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের পাশপাশি আনোয়ারা এলাকার পারকি সমুদ্র সৈকতেও সন্ধ্যার পর থেকে যানবাহন ও দর্শনার্থীদের প্রবেশের ব্যাপারে কড়াকড়ি আরোপ করা করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার বিকেলে এ উপলক্ষে সিএমপির অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে নগরবাসীর জন্য কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নির্দেশনাগুলোর মধ্যে রয়েছে- সন্ধ্যা ৭টার পর বিমানযাত্রী ছাড়া কোনো গাড়ি পতেঙ্গা/বিমানবন্দর সড়কে চলাচল করতে দেয়া হবে না; ইংরেজি নববর্ষের প্রাক্কালে মঙ্গলবার রাত ৮টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ, জনসমাবেশ ও উৎসবস্থলে লাইসেন্সকৃত আগ্নেয়াস্ত্র বহন করা যাবে না; অনুষ্ঠানে আতশবাজি, পটকা ফুটানো যাবে না; বিকেল ৫টার পর পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে অবস্থান করা যাবে না; ফয়’স লেক, ডিসি হিল, আগ্রাবাদ শিশুপার্ক, কাজীর দেউরী শিশুপার্কসহ বিভিন্ন স্থানে এই উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সব অনুষ্ঠান রাত ৮টার মধ্যে সমাপ্ত করতে হবে; খ্রিস্টান ক্লাবসহ চট্টগ্রামের অভিজাত ক্লাবগুলোতে যাতে কোনো ধরনের বাড়াবাড়ি না হয় সেদিকে কর্তৃপক্ষকে দৃষ্টি রাখার অনুরোধ; অনুমতি ছাড়া খোলা মাঠে বা রাস্তায় থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনের কোনো অনুষ্ঠান সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।


আরোও সংবাদ