রাঙ্গামাটির খবর

প্রকাশ:| বুধবার, ৬ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:৪১ অপরাহ্ণ

স্বাধীন বাংলাদেশে সংখ্যালঘু স¤প্রদায়ের উপর অত্যাচার মেনে নেয়া যায়না তা রুখতে সকল স¤প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা। নি ১তিনি বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে সকল স¤প্রদায়ের লোক জীবন দিয়েছে। কিন্তু একটি জঙ্গীবাদ মৌলবাদী গোষ্ঠী সংখ্যালঘু স¤প্রদায়ের উপর দিনের পর দিন অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। এই অত্যাচার বন্ধ করতে হবে। এই অত্যাচার বন্ধ না হলে আমাদের এই দেশ বিশ্বের কাজে একটি জঙ্গীবাদ ও সা¤প্রদায়িক দেশ হিসাবে পরিচিত হবে।
বুধবার ৬ নভেম্বর রাঙ্গামাটির গর্জনতলী অখন্ড উপসনা মন্দিরে ভ্রাতৃ দ্বিতীয়া অখন্ড মহা সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
আঞ্চলিক সম্মিলিত অখন্ড সংগঠন রাঙ্গামাটি জেলার সভাপতি লোকনাথ দেব বর্মন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষ, বিসিক চট্টগ্রামের প্রাক্তন আঞ্চলিক পরিচালক নির্মলেন্দু ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি আঞ্চলিক অখন্ড সংগঠন এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ডাঃ বিশ্ব কৃর্ত্তি ত্রিপুরা, ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন খাগড়াছড়ি জেলা সম্মিলিত অখন্ড সংগঠন এর সভাপতি স্বপন কুমার মিত্র, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, জেলা আঞ্চলিক সম্মিরিত অখন্ড সংগঠন রাঙ্গামাটির সাধারণ সম্পাদক প্রণেশ্বর ত্রিপুরা, স্বাগত বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি জেলা অখন্ড উপসনা মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক সুকুমার ত্রিপুরা।
পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, বর্তমান সরকার দেশের সকল স¤প্রদায়ের ধর্মীয় অধিকার নিশ্চিত করেছে। সকল স¤প্রদায় যাতে তাদের স্ব স্ব ধর্ম নিরাপদ ও নির্বিঘেœ পালন করতে পারে তার জন্য সতর্ক ছিলো। কিন্তু একটি মোলবাদী গোষ্ঠী সরকারের এই ভূমিকা দেশে ঈর্ষান্বিত হয়ে সা¤প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির মাধ্যমে দেশকে একটি মৌলবাদী জঙ্গী গোষ্ঠী দেশে তালেবানী রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। কিন্তু তাদের এই স্বপ্ন কখনোই সফল হবে না। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বিগত ৫ বছরে সকল স¤প্রদায়ের ধর্ম পালনে যেমন নিরাপত্তা দিয়ে এসেছে আগামীতেও এই নিরাপত্তা দিয়ে আসবে।

রাজস্থলী উপজেলায় বিভিন্ন অধিদপ্তরের তৃতীয় শ্রেনী কর্মচারীদের একমাত্র বিনোদন ক্লাব ভিত্তি প্রস্তুর স্থাপনরাজস্থলী ভি
রাজস্থলী উপজেলায় বিভিন্ন অধিদপ্তরের তৃতীয় শ্রেনী কর্মচারীদের একমাত্র বিনোদন ক্লাব ভিত্তি প্রস্তুর স্থাপন করেন। কাবটি ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন, উপজেলায় চেয়ারম্যান থোয়াইসুইখই মারমা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ছাদেকুর রহমান।
তৃতীয় শ্রেনী কর্মচারী কাবের সভাপতি দিল্লীপ কুমার তঞ্চগ্যা জানান, দীর্ঘদিনের প্রত্যাশিত কাব ভবন নির্মানের আনুষ্ঠানিক ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের মধ্যে দিয়ে তৃতীয় শ্রেনী কর্মচারীদের একধাপ বিনোদন ব্যবস্থা যাত্রা শুরু করলেন। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান থোয়াইসুইখই মারমা বলেন, দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কর্মজীবন তাগিদে আজ প্রত্যন্ত রাজস্থলী উপজেলা এসে এসব কর্মচারীরা নিষ্ঠার সাথে চাকরী করছে। নুন্যতম বিনোদন ব্যবস্থা এসব কর্মচারীদের জন্য প্রয়োজন। এছাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ছাদেকুর রহমান বলেন, আধুনিক সভ্যতা সমাজের সাথে তালমিলিয়ে কর্মচারীদের কাজের দিগন্ত বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। এসব কর্মচারীদের বিনোদন ব্যবস্থার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করা হবে। এসময় ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হোসেন, ৩য় শ্রেনী কর্মচারী ক্লাবের উপদেষ্টা ও সমন্বয় পরিষদের সভাপতি বসুবন্ধু মুৎসুদ্দিসহ সকল বিভাগে তৃতীয় শ্রেনী কর্মচারীগন উপস্থিত ছিলেন।