রাঙামাটি পৌর মেয়রের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশ:| সোমবার, ৯ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ০৯:২৭ অপরাহ্ণ

রাঙ্গামাটি পৌর মেয়র
রাঙামাটি প্রতিনিধিঃ নির্বাচন পূর্ব রাঙামাটি পৌর এলাকায় পৌরসভা কর্তৃক উন্নয়নমূলক প্রকল্প অনুমোদন ও বান্তবায়ন স্থগিত রাখতে গত রবিবার রাঙামাটি জেলা প্রশাসক বরাবরে শহরের উন্নয়ন কার্যক্রম বন্ধের জন্য রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ মুছা মাতব্বর স্বাক্ষরিত লিখিত পত্রের জন্য উদ্বেগ জানিয়েছেন রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র মোঃ সাইফুল ইসলাম চৌধুরী।

সোমবার রাঙামাটি পৌরসভার উন্নয়ন কার্যক্রমসহ পৌরএলাকার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে রাঙামাটিতে পৌরমেয়রের উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলনে এ উদ্বেগ জানান রাঙামাটি পৌর মেয়র। পৌরসভার উন্নয়নমূলক কার্যক্রম ও ভবিষ্যৎ কার্যক্রম নিয়ে সোমবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হলে ও সংবাদ সম্মেলনের পুরো অংশজুড়েই ছিল পৌরসভার উন্নয়ন কার্যক্রম বন্ধের জন্য গত রবিবার জেলা প্রশাসক বরাবর লেখা রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ মুছা মাতব্বরের লিখিত চিঠি নিয়ে। সকাল সাড়ে এগারোটায় রাঙামাটি পৌরসভায় অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে পৌর মেয়র মোঃ সাইফুল ইসলাম চৌধুরীসহ ৯ ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।

পৌরসভার মেয়র বলেন,পৌরসভার উন্নয়ন কার্যক্রমের উদ্যোগ নেয়া হলে ও বিভিন্ন কারনে আমরা বাধাগ্রস্থ হয়েছি। অনেক কষ্ট করে আমরা পৌরসভার নির্বাচিত সকলে দলমতের উর্ধে থেকে রাঙামাটি শহরের রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম সফল করার লক্ষ্যে কোটি টাকার যে প্রকল্প হাতে নিয়েছি তা বাস্তবায়নের জন্য পৌরসভা কর্তৃপক্ষ যখন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ঠিক তখন শহরের উন্নয়ন কার্যক্রম বন্ধের জন্য রাঙামাটি জেলা প্রশাসক বরাবর আওয়ামী লীগের মতো একটি রাজনৈতিক দলের প্যাড ব্যবহার করে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ মুছা মাতব্বরের পাঠানো চিঠি আমাদের সকলকে হতবাক করেছে।

তিনি বলেন, আমি বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকলে ও একজন পৌর মেয়র হিসেবে দলমতের উর্ধে থেকে শহরের উন্নয়নের জন্য প্রকল্প গ্রহন করেছি। তিনি বলেন,আগামীতে আমি পৌরসভা নির্বাচন করবনা,তবে পৌরবাসীর জন্য এমন একটি প্রকল্প আমরা গ্রহণ করেছি যাতে আগামীতে যে দলেরই পৌর মেয়র নির্বাচিত হোকনা কেন নতুন পৌরপরিষদ আগামীতে ২শত কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন করার মতো আমরা বর্তমান পৌরপরিষদ পথ তৈরী করে দিয়ে যাচ্ছি। যা সুযোগ থাকার পরে ও অতীতের মেয়র করে যাননি।

পৌরমেয়র বলেন,এখনো পৌরসভা নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা করা হয়নি অথচ পৌরসভার উন্নয়ন কার্যক্রম বন্ধ করতে জেলা প্রশাসন বরাবরে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক লিখিত চিঠি দিয়েছেন যা বেআইনি।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন,সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর রোকসানা, রাঙামাটি ৭নং ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর ও সাবেক প্যানেল মেয়র রবিউল আলম কাউন্সিলর কালায়ন চাকমা, ধীরেন্দ্র নাথ চাকমা, জয়তুন নূর বেগম প্রমূখ।
রাঙামাটি পৌরসভার উন্নয়ন কাজ বন্ধে জেলা প্রশাসনে চিঠি পাঠানোর বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর পত্র দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন। তিনি জানান,নির্বাচন কমিশন কর্তৃক জারিকৃত গেজেট অনুসারে আমি এই পত্র দিয়েছি।

তবে রাঙামাটি পৌরসভার উন্নয়ন কাজ বন্ধে জেলা প্রশাসক বরাবরে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের পাঠানো চিঠিতে শহরের অনেকেই প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। বিষয়টি রাঙামাটি শহরে এখন টক অব দ্য টাউনে পরিনত হয়েছে।