রাঙামাটিতে সনাক-টিআইবি’র মানববন্ধন

প্রকাশ:| শনিবার, ২৮ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ০৯:১২ অপরাহ্ণ

rewএম.নাজিম উদ্দিন,রাঙামাটিঃ “জলবায়ু অভিযোজনে ক্ষতিপূরন হিসেবে ঋণ নয়, অনুদান চাই” দাবিকে সামনে রেখে রাঙ্গামাটি সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) এবং ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) শনিবার রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানব বন্ধনের আয়োজন করে।

মানব বন্ধনে সনাক, স্বজন, ইয়েস, ইয়েস ফ্রেন্ডস এবং রাঙামাটিতে কর্মরত বিভিন্ন উন্নয়ন সংগঠনের সদস্যবৃন্দ অংশগ্রহণ করে। মানব বন্ধনে শুভেচ্ছা বক্তব্যে সনাক এর সদস্য মোহম্মদ আলী আগামী ২৯ নভেম্বর- ১২ ডিসেম্বর প্যারিসে অনুষ্ঠিতব্য কপ-২১ সম্মেলনে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে উন্নত দেশ কর্তৃক প্রদেয় ক্ষতিপুরনের প্রতিশ্র“তি অনুযায়ী অনুদান প্রদান এবং ক্ষতিপুরনের অর্থকে কোন অবস্থায় ঋন হিসেবে না নেয়ার জন্য বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জোরালো দাবি উত্থাপনের জন্য আহ্বান জানান।

তিনি উক্ত দাবিকে সামনে রেখে এবং জলবায়ু অর্থায়নে স্বচ্চতা, জবাবদিহীতা, শুদ্ধাচার এবং সুশাসন নিশ্চিত করার জন্য টিআইবি কর্র্তৃক সুপারিশ বাস্তবায়নের জন্য বাংলাদেশ সরকার এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় বিশেষত শিল্পোন্নত দেশগুলোর প্রতি দৃষ্টি আকর্ষন করেন। ইয়েস দলনেতা ভূবন জ্যোতি চাকমা জলবায়ু অর্থায়নে শিল্পোন্নত দেশগুলোর প্রতিশ্র“তি রক্ষা এবং তহবিল ব্যবহারে বাংলাদেশ সহ সংশ্লিষ্ট সকল দেশ কর্তৃক স্বচ্চতা এবং জবাবদিহীতা নিশ্চিতে টিআইবি’র সুপারিশ ও মানব বন্ধনের ধারনাপত্র পাঠ করেন।

মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, রাঙামাটি এর সদস্য শাহেদা আক্তার, ব্র্যাক এর জেলা প্রতিনিধি সমীর কুন্ডু এবং সনাক সহ সভাপতি অমলেন্দু হাওলাদার। মানব বন্ধনে সমাপনী বক্তব্যে সনাক সভাপতি চাঁদ রায় বলেন, “শিল্পোন্নত দেশগুলোর অতিরিক্ত কার্বন নির্গমনের ফলে তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে জলবায়ুর ব্যাপক পরিবর্তন হচ্ছে এবংএর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশ শীর্ষে রয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বাংলাদেশে মোট জিডিপির ১.২ শতাংশ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। তিনি বলেন এমতাবস্থায় প্যারিসে আসন্ন কপ-২১সম্মেলনে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরনের দাবিসমূহ জোরালোভাবে উপস্থাপন করতে হবে”।


আরোও সংবাদ