রাউজান উপজেলা পুঁজা উদযাপন পরিষদের মত বিণিময় সভা

প্রকাশ:| সোমবার, ৩০ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ০৯:৩০ অপরাহ্ণ

raw pojaশফিউল আলম, রাউজান প্রতিনিধিঃ সোমবার রাউজান উপজেলা পরিষদ আয়োজিত উপজেলা পূজা কমিটির সভায় এই বিষয়টি প্রধান্য পায়। শারদীয় দুর্গোসৎবের শান্তিপূর্ণ পরিবেশের পাশাপাশি চাঞ্চল্যকর এই রায় ঘোষনা পরবর্তী সম্ভাব্য প্রতিক্রিয়া নিয়ে সকল পক্ষ থেকে আলোচনায় গুরুত্ব দেয়া হয়। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দসহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ। সভার সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কুলপ্রদীপ চাকমা রায়ের সম্ভাব্য প্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে সকলকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। থানা প্রশাসনকে এলাকায় সতর্ক টহল জোরদার করতে নিদ্দেশ দিয়েছেন। এসময় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনামুল হক রায় ঘোষনার আগে পড়ে এলাকার শান্তি শৃংঙ্খলা বজায় রাখার সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে সকলকে আশ্বস্থ করেন।
সভায় উপজেলা পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক গৌতম পালিত টিকলু বলেন চাঞ্চল্যকর এই রায় ঘোষনার প্রক্রিয়ায় সাকার অনুগতরা এলাকায় শান্তি শৃংঙ্খলা বিঘিœত করতে পারে। এরকম ঘটনা ঘটলে রাউজানে আসন্ন দুর্গো পূজায় প্রভাব পড়বে। কমিটি সভাপতি প্রিয়তোষ চৌধুরী জানায় রাউজানের বিভিন্ন গ্রামে এবার ২১৭টি মণ্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হবে। সভায় উপস্থিত প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন প্রতিটি পূজা মণ্ডপে দুর্গোৎসব শান্তিপূর্ণ ও উৎসব মুখর করতে পুলিশের পাশাপাশি আওয়ামীলীগ দলীয় নেতাকর্মীরা সার্বক্ষনিক তৎপর থাকবে। যুদ্ধাপরাধীর রায়কে কেন্দ্র করে কেউ যাতে পরিস্থিতি ঘোলাটে না করতে পারে সে ব্যাপারে প্রশাসনের কঠোর হওয়ার অনুরোধ জানান ।