রাউজানে প্যাকেজ এর আড়ালে গরু চুরির ঘটনা সংগঠিত করছে প্যাকেজ শিল্পিরা

প্রকাশ:| রবিবার, ১১ আগস্ট , ২০১৩ সময় ১১:৪০ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম ,নিউজচিটাগাং২৪.কম।।
goro corরাউজান উপজেলার ইউনিয়নের দক্ষিন হিংগলা শান্তি নগর এলাকার ফিরোজ মিয়ার ভাড়া ঘরে ঘর ভাড়া নিয়ে কামাল উদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যরা বসবাস করেন । একই এলাকায় ইয়াসিনের ঘর ভাড়া নিয়ে সদ্য বিবাহিত স্ত্রীকে বসবাস করেন হারুনের ছেলে তৈয়ব । কামাল উৃদ্দিনের ছেলে রুবেল ও তৈয়ব দুইজনেই এলাকার বিবহি অনুষ্টানে প্যাকেজ শিল্পী হিসাবে নাচঁ, গাস পরিবেশন করেন । রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় তৈয়ব ও রুবেল প্যাকেজ শিল্পী হিসাবে পরিচিত । গত ১০ আগষ্ট শনিবার দিবাগত রাতে রাউজানের দক্ষিন হিংগলা কাজী বাড়ীর সিরাজুল হক, আবুল হাশেমের গোয়াল ঘর থেকে দুইটি গাভী গরু, দুইটি বাছুর চুরি করে নিয়ে যায় । গতকাল সকালে সিরাজুল হক ও আবুল হাশেম গোয়াল ঘরে গরু দেখতে না পেয়ে এলাকার লোকজন সহ গরু খোজাখুজি করে। এই সময় দক্ষিন হিংগলার পার্শ্ববর্তী কলমপতি তপোবন আশ্রমের পার্শ্বে কাসখালী খাল এর ঝোপের মধ্যে গরু চোর দলের সদস্য সহ কয়েকটি গরু দেখতে পেয়ে এলাকার লোকজন তাদের ধাওয়া করলে, গরু চোর দলের সদস্যরা জনতার ধাওয়ার মুখে পালিয়ে যাওয়ার সময়ে তৈয়ব (২২) রুবেল (১৯) কে ধরে ফেলে । ঘটনার সংবাদ পেয়ে রাউজান থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুই গরু চোর সহ চারটি চোরাই গরু উদ্বার করে । গরু চুরির ঘটনার ব্যাপরে সিরাজুল হক বাদী হয়ে রাউজান থানায় মামলা দায়ের করেন । রাউজান থানার এস আই মাহমদুল হাসান রুবেল জানান, চোরাই গরু স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জিম্মায় গরুর মালিকদের কছে ফেরৎ দিয়েছে । জনতার হাতে ধৃত গরু চোর তৈয়ব ও রুবেল গরু চুরির ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন । উল্লেখ্য যে গত শনিবার দিবাগত রাতে দক্ষিন হিংগলা এলাকার সাবেক মেম্বার সোলায়মানের একটি গাভী গরু চুরি হয় । গত ১০ জুলাই দিবাগত রাতে দক্ষিন হিংগলা এলাকার আবিদ আলী তালুকদার বাড়ীর আমিনুল হক, ও মামুনের ৫টি গরু চুরি কওে নিয়ে যায় । একই রাকে রাউজান পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডেও পশ্চিম রাউজান ডাঃ মনোরঞ্জন মুহুরীর বাড়ীর নিমতী মুহুরীর দুইটি গরু চুরি করে নিয়ে যায় । তৈয়ব ও রুবেল এলাকায় প্যাকেজ নাটক করার আড়ালে রাতে গরু চুরি করে চট্টগ্রাম শহরের বিবির হাট সহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় রাতে ট্রাকযোগে গরুগুলো গরু চোরাকারবারী ও মাংস ব্যবসায়ীদের কাছে পৌছে দেয় বলে তৈয়ব ও রুবেল ও পুলিশের কাছে স্বিকার করেন ।