রাউজানে জাতীয় শোক দিবস পালিত

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৫ আগস্ট , ২০১৩ সময় ১০:০৯ অপরাহ্ণ

sk mojeb2শফিউল আলম ,নিউজচিটাগাং২৪.কম।।জাতীর জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমানের ৩৮ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় শোক দিবস রাউজানে যথাযথ মর্যদায় অনুষ্টিত হয় । জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাউজান উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রাউজান পাবলিক হল অটেডিরাম হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কুল গ্রদীপ চাকমার সভাপতিত্বে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইফুল ইসলামের পরিচালনায় আলোচনা সভা গতকাল ১৫ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার সময় অনুষ্টিত হয় । আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন গৃহায়ন ও গণপুর্ত মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি । আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফৌজিয়া খানম মিনা, চট্টগ্রাম পল্লী বিদুৎ সমিতি (২) এর জেনারেল ম্যানেজার প্রদীপ কুমার দে, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ অসীম কুমার নাথ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুর রশিদ ভুইয়া, যুব উন্নয়ংন কর্মকর্তা শাহ ই জাহান, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নিয়াজ মোরশেদ, রাউজান থানার ওসি এনামুল হক, চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরী, কাজী দিদারুল আলম, নুরুল আবছার বাশি, আনোয়ার চৌধুরী, মুজাহিদ উদ্দিন লিংকন, সুকৃমার বড়–য়া প্রমুখ । আলোচনা সভা শেষে যুব উন্নয়ন কতৃক বেকার যুবকদের আর্ত্বকর্মসংস্থান করার লক্ষ্যে ঋণের টাকার চেক বিতরণ ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত কেরাত ও রচনা প্রতিযোগীতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন গৃহায়ন ও গণপুর্ত মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি ।
জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রউজান উপজেলা ওলামা লীগের উদ্যোগে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্য্যালয়ে গতকাল ১৫ আগষ্ঠ বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার সময় মিলাদ মাহফিল অনুষ্টিত হয় । মাহফিলে ব গৃহায়ন ও গণপুর্ত মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি বক্তব্য রাখেন, গৃহায়ন ও গণপুর্ত মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। মাহফিলে আরো বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কাজী আবদুল ওহাব,উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উৃদ্দিন খান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী ইকবাল, পৌর প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খান, মাওলানা আবু মুছা সিদ্দিকী, মাওলানা আবদুল মান্নান,মাওলানা সাইদুল আলম খাকী, মাওলানা জাফর আহাম্মদ, মাওলানা শামশুল আলম, মাওলানা জামাল উদ্দিন, মাওলানা বোরহান উদ্দিন, আবদুল মানান, মাহ আলম,সোহরাব হোসেন,তৌহিদুল ইসলাম, শফিউল আলম, মাওলানা আবু তৈয়ব আনসারী,সিরাজুল ইসলাম সিদ্দিকী,আবদুল গফুর,শামশুল আলম হেলালী,কাজী মোঃ আকবর,অলি উল্লাহ প্রমুখ । মিলাদ মাহফিল শেষে জাতীর জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্য যারা ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট ঘাতকের হাতে নির্মম ভাকে শাহাদাৎ বরণ করেন তাদের আর্ত্বার মাগফেরাত ও দেশ জাতীর মঙ্গল কামনা করে মোনাজাত করেন ওলামা পরিষদের আহবায়ক মাওলানা আবু মুছা সিদ্দিকী।
জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ এর উদ্যোগে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গতকাল ১৫ আগষ্ট বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টার সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজের পরিচালনায় আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয় । আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন গৃহায়ন ও গণপুর্ত মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি । এতে আরো বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কাজী আবদুল ওহাব, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উৃদ্দিন খান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী ইকবাল, পৌর প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খান, মাওলানা আবু মুছা সিদ্দিকী, মাওলানা আবদুল মান্নান,মাওলানা সাইদুল আলম খাকী, চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরী, কাজী দিদারুল আলম, নুরুল আবছার বাশি, আনোয়ার চৌধুরী, মুজাহিদ উদ্দিন লিংকন, সুকৃমার বড়–য়া, আওয়ামী লীগ নেতা সাধন মুহুরী, নাসির উদ্দিন খান প্রমুখ । উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্য্যালয়ে কাঙ্গাঁলী ভোজের আয়োজন করা হয় ।

১৫ আগষ্টের হত্যাকাণ্ডের
বর্ণণায় শিশু উম্মির কান্না

ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্যতম ও নির্মম ১৫ আগষ্টের হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি দেখেনি শিশু উম্মি দাশ(১৪)। এই হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে অনেক ঘটনা ও ঘাতকদের সর্ম্পকে বিস্তারিত জানা বুঝার মত বয়সও হয়নি তার। তবুও এই হত্যাকাণ্ডের বর্ণণা দিতে গিয়ে কাঁদল সে। কাঁদাল অন্যদের। গত ১৫ আগষ্ট রাউজানের পশ্চিম গুজরা উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজন করা হয়েছিল জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা। প্রধান শিক্ষক তিমির কান্তি বড়–য়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে শিক্ষক ছাত্রছাত্রীরা। শিক্ষার্থীদের অনেকেই কাগজে লিখে আনা বক্তব্যে বঙ্গবন্ধুর কর্মময় জীবন ও তার সংগ্রামের কথা তুলে ধরে। শেষ পর্যায়ে কাগজ হাতে বক্তব্য দিতে আসে স্কুলের অষ্টম শ্রেণী ছাত্রী ঊম্মি দাশ(১৪)। অন্যদের মত সুচনাতেই সে বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন নিয়ে আলোচনা করে। শেষ পর্যায়ে এই হত্যাকাণ্ডের শিকার শিশু রাসেল ঘাতকদের কাছে মায়ের কাছে যাওয়ার যে আকুতি রেখেছিল তার বর্ণণা দিতে গিয়ে সে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। এসময় তার মনের আবেগ দেখে শিক্ষার্থীরা ও অতিথিতে মধ্যেও চোখের পানি আসে। শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলমের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ ইমতিয়াজ, সদস্য সাংবাদিক মীর মোহাম্মদ আসলাম, শ্যামল সেন, সন্জিত দে, শিক্ষক বাসনা বড়–য়া, মেম্বার আবদুল মালেক, মেম্বার অজিত দে, শিক্ষক শিপ্রা চক্রবর্তী,মাহবুল আলম, মোহাম্মদ লোকমান প্রমূখ ।


আরোও সংবাদ