রাউজানে চুয়েটের স্কুল শিক্ষিকার রহস্যজনক মৃত্যু শিক্ষক স্বামী আটক

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৯ অক্টোবর , ২০১৪ সময় ১১:১৭ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান প্রতিনিধিঃ রাউজানের চুয়েট ক্যাম্পাস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সুর্বনা বড়–য়া (৩৫) এর রহস্যজনক ভাবে মুত্যুবরণ করেছেন । শিক্ষিকা সুবর্ণ বড়–য়ার রহস্যজনক ভাবে মুত্যু হওয়ার পর তার স্বামী শিক্ষক চন্দন বড়–য়া স্ত্রী সুবর্ণা বড়–য়ার লাশ গোপনে দাহ করে ফেলার প্রচেষ্টা চালায় । রাউজান থানা পুলিশ গোপনে সংবাদ পেয়ে শিক্ষিকা সুবর্ণা বডুয়ার লাশঁ দাহ করতে নেওয়ার সময়ে লাশঁ উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন । শিক্ষিকা সুবর্ণ বড়–য়ার রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনার ব্যাপস্তোর স্বামী শিক্ষক চন্দন বড়–য়া (৪৫) কে পুলিশ আটক করে রাউজান থানায় নিয়ে আসা হয় । রাউজান থানায় আটক শিক্ষক চন্দন বড়–য়া জানায় চন্দন বড়–য়া নিজেই পাহাড়তলী জগৎপুর আশ্রম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক । স্ত্রী সুবর্না বড়–য়া চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যম্পাস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন । স্বামী স্ত্রী দুইজনই শিক্ষকতা করার সুবাধে রাউজানের পাহাড়তলী আয়েশা কমিউনিটি সেন্টারের বিল্ডিংয়ের চারতলায় ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস করেন । তাদের নয় বৎসর বয়সের অর্চ বড়–য়া নামে এক শিশু সন্তান রয়েছে । আটক শিক্ষক চন্দন বড়–য়া দাবী করছেন গত ৮ অক্টোবর তারা দিবাগত রাতেই তারা দুইজনই বাসায় ঘুুমায়। সুর্বর্ণা বড়–য়ার পরিক্ষার খাতা নিয়ে শয়ন কক্ষের মধ্যে ব্যস্ত থাকায় স্বামী চন্দন বড়–য়া পার্শ্বের রুমে ঘুমায় । রাত শেষে গতকাল ৯ অক্টোবর সকালে চন্দন বড়–য়া ঘুম থেকে উঠে শয়ন কক্ষে যায় । শয়ন কক্ষের সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ফাসঁ লাগিয়ে সুবর্না বড়–য়া আতœহত্যা করাা অবস্থায় দেখতে পায় বলে দাবী করছেন স্বামী চন্দন বড়–য়া । শিক্ষিকা সুবর্ণা বড়–য়ার রহস্য জনক মৃত্যুর ঘটনার পর সুবর্ণা বড়–য়ার স্বামী শিক্ষক চন্দন বড়–য়াকে পুলিশ আটক করেন । রাউজান থানার ডিউটি অফিসার আমজাদ জানান, শিক্ষিকা সুবর্ণা বড়–য়া লাশ উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে । মামলার প্রস্তুতি চলছে । রাউজানের উরকিচর ইউনিয়নের আবুরখীল এলাকার বনগোপাল বড়–য়ার কন্যা শিক্ষিকা সুর্বর্ণা বড়–য়াকে গত ২০০২ সালের ২০ নভেম্বর রাউজানের পুর্ব গুজরা ইউনিয়নের আধারমানিক নতুন বাজার জনলোতকের বাড়ীর মৃত শিক্ষক দেবপ্রসাদ বড়–য়ার পুত্র শিক্ষক চন্দন বড়–য়া বিবাহ করেন । সুর্বর্ণা বড়–য়াকে হত্যা করেছে না সুর্বর্ণা নিজেই আতœহত্যা করেছে এইটা কেউ নিশ্চিত বলতে পারছেনা । সুবর্ণা বড়–য়ার লাশেঁর ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে সুবর্ণা বড়–য়াকে হত্যা করেছে না সুবর্ণা বড়–য়া নিজেই র্র্আতœহত্যা করেছে ।