রাউজানে গৃহবধুর অস্বাভাবিক মৃত্যু

প্রকাশ:| বুধবার, ১০ মে , ২০১৭ সময় ০৮:২৯ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান ঃ রাউজান উপজেলার ১০ নং পুর্ব গুজরা ইউনিয়নের বড়ঠাকুর পাড়া এলাকার রমজান আলী মাষ্টারের বাড়ীর আবদুল লতিফ কেরানীর পুত্র জানে আলমের স্ত্রী ইয়াসমিন আকতারের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘঠেছে । ১০ মে বুধবার বিকাল ৩ টার সময় এই ঘটনা সংগঠিত হয় । গৃহবধু ইয়াসমিন আকতার (২৫) ঘরের পেছনে পুকুরের পানিতে পড়ে মৃত্যু হয়েছে বলে এলাকায় প্রচার করে জানে আলম ও তার পরিবারের সদস্যরা । ইয়াসমিন আকতার পুকুরে পানিতে পড়ে মুত্যুর কোন ধরনের চিহ্ন ও পরনের কাপড় শুকনা দেখে এলাকার লোকজনের সন্দেহ হলে এলাকার লোকজন রাউজান থানা পুলিশকে সংবাদ দেয় । পুলিশ সংবাদ পেয়ে রাউজান থানার ওসি কেপায়েত উল্ল্যাহ, পুর্ব গুজরা পুলিশ তদন্ত ফাড়ীর ইনচার্জ মহসিন রেজা, রাউজান থানার এস আই আল আমিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশের ছুরুতহাল রিপোর্ট তৈয়ার করেন ও লাশ উদ্বার করে রাউজান থানায় নিয়ে আসার প্রক্রিয়া করছেন বলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত রাউজান থানার এস আই আল আমিন জানান । এলাকার লোকজন জানান জানে আলম গত ৬ বৎসর পুর্বে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার শরফভাটা এলাকার লেদু মিয়র কন্যা ইয়াসমিন আকতারকে বিয়ে করেন । বিয়ের পর প্রতিনিয়িত জানে আলম ও তার পরিবারের সদস্যরা গৃহবধু ইয়াসমিন আকতারকে শারিরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করতো । গত এক বৎসর পুর্বে গৃহবধু ইয়াসমিন আকতারকে নির্যাতনের ব্যাপারে রাউজান থানায় অভিযোগ করলে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা বৈঠক করে জানে আলম ও তার পরিবারের সদস্যরা আর নির্যাতন করবেনা বলে অঙ্গিকার নিয়ে অভিযোগটি মীমাংসা করে দেয় । গৃহবধু ইয়াসমিন আকতারের এক ৪ বৎসর বয়সের এক কন্যা সন্তান রয়েছে বলে এলাকার লোকজন জানান । ঘটনার পর ইয়াসমিন আকতারের স্বামী জানে আলম সহ তার পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে পুলিশ আটক করেছে ।


আরোও সংবাদ