রাউজানে আ.লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার

প্রকাশ:| রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর , ২০১৫ সময় ১০:২৫ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান ঃ

rana 13,12,2015-1রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুই বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছে ।অপর বিদ্রোহী প্রার্থী আওয়ামী লীগের সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করে নির্বাচনে প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে । রাউ জান পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, রাউজান পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী স্বপর দাশ গুপ্ত রবিবার মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করার শেষ দিনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও রিটানিং অফিসার কুল প্রদীপ চাকমার কাছে উপস্থিত হয়ে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেয় । দুইজনেই তাদের ব্যক্তিগত সমস্যার কারনে মেয়র প্রার্থী পদ থেকে সরে গেছে বলে জানান । অপরদিকে আওয়ামী লীগের অপর বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করে স্বতন্দ্র মেয়র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনী প্রচারনায় রাউজান ফকির হাট বাজারে গনসংযোগ করেন গতকাল বিকালে । রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মেয়র প্রার্থী দেবাশীষ পালিত গতকাল রাউজান পৌর এলাকার ছিটিয়া পাড়া ও সুলতানপুৃর এলাকায় গনসংযোগ করেন। বিএনপির মেয়র প্রার্থী কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান গতকাল রাউজান পৌর এলাকার পশ্চিম গহিরায় গনসংযোগ করেন ।

রাউজান পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির একক প্রার্থী কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী দেবাশীষ পালিত নৌকা প্রতিক নিয়ে নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদন্দ্বিতা করছেন । রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মেয়র প্রার্থী দেবাশীষ পালিতের বিরুদ্বে আওয়ামী লীগের তিন বিদ্রোহী স্বতন্দ্র মেয়র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা, আনোয়ারুল ইসলাম, স্বপন দাশ গুপ্ত বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী হিসাবে মেয়র পদে মনোনয়ন পত্র জমা দেয় । গতকাল রবিবার ,নোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করার শেষ দিনে বিকালে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম, স্বপন দাশ গুপ্ত মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেয় । আওয়ামী লীগের অপর বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা গতকাল রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন । সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানার পদত্যাগ পত্র প্রদান করেছেন বলে উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী জানান । স্বতন্দ্র মেয়র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা বলেন আমি রাউজান পৌরসভার মানুষের ভালবাসা ও পৌরবাসীর অনুরোধে রাউজান পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছি । নির্বাচনে এলাকার সাধারণ মানুষ আমাকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করবেন । দল থেকে পদত্যাগ প্রসঙ্গে সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা বলেন আমাকে এলাকার জনগন ভালবাসলে ও দল থেকে নির্বাচন থেকে যাওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে । এলাকার মানুষের ভালবাসাকে প্রধান্য দিয়ে দল থেকে দল থেকে পদত্যাগ করে নির্বাচনে প্রতিদন্দ্বিতা করছেন বলে জানান স্বতন্দ্র মেয়র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম চৌধুরী ।

স্বতন্দ্র মেয়র প্রার্থী মীর মনসুর আলম বলেন, আমাকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী বলা হচ্ছে আমি কোন দলের প্রার্থী নয় আমি জনগনের প্রার্থী । আওয়ামী লীগের কোন পদে আমি নেই । দল থেকে পদত্যাগ ও মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করা প্রসঙ্গে মীর মনসুর আলম বলেন আমি বিবাহ করেনি স্ত্রীকে তালাক দেবো কি ভাবে । রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান বলেন অবাধ ও সুষ্ট নির্বাচন হলে আমি আবারো মেয়র নির্বাচিত হবো । রাউজান উপজেলা নিবার্হী অফিসার রিটানিং অফিসার কুল প্রদীপ চাকমা জানান ময়ের প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম, স্বপন দাশ গুপ্ত মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছে । রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে ৯টি ওয়ার্ড থেকে ও সংরক্ষিত তিনটি ওয়ার্ড থেকে বার জন কাউন্সিলর বিনা প্রতিদন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে বলে জানান রাউজান উপজেলা নিবার্হী অফিসার রিটানিং অফিসার কুল প্রদীপ চাকমা । আজ সোমবার স্বতন্দ্র মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্ব করা হবে বলে জানান উপজেলা নির্বাচন অফিসার হুমায়ুন কবির ।


আরোও সংবাদ