রমজান হঠাৎ করে ভোগ্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ার কারণ খুঁজে বের করুন

প্রকাশ:| বুধবার, ১১ জুন , ২০১৪ সময় ০৯:৩২ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম চেম্বাররমজান এলেই হঠাৎ করে ভোগ্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ার কঠোর সমালোচনা করে এর কারণ খুঁজে বের করার দাবি জানিয়েছেন সাধারণ ভোক্তা ও ব্যবসায়ীরা। পাশাপাশি রমজানের আগে বাজার মনিটরিং জোরদারের দাবি জানান তারা।

বুধবার বিকেলে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব দাবি জানান। চট্টগ্রাম চেম্বার রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ও আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।

সভায় সরকারি বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা, পুলিশ, ব্যবসায়ী, আমদানিকারকসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

চাক্তাই শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি হারুনুর রশিদ বলেন, রমজান শুরু হওয়ার এখনো অনেক দেরি। কিন্তু এরই মধ্যে ছোলার দাম বাড়তে শুরু করেছে।

তিনি বলেন, ১০ দিন আগে যে ছোলা ৪৫ থেকে ৪৮ টাকায় বিক্রি হয়েছে তা বুধবার ৫৫ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হঠাৎ করে কেজিতে ১০ থেকে ১২ টাকা বেড়ে গেল কেন? সেটা খুঁজে বের করা দরকার।

আমদানি মূল্যের দ্বিগুণ দামে ছোলা ও খেজুর বিক্রি হচ্ছে অভিযোগ করে ব্যবসায়ী মাহবুব রানা বলেন, আমদানি মূল্যে যেসব ছোলা ও খেজুর আনা হয়েছিল সেগুলো দ্বিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে।

তিনি বলেন, বুধবারও ৩৫ থেকে ৪০ টাকায় কাঁচা মরিচ, ৪০ থেকে ৪৫ টাকায় বেগুণ বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু রোজা শুরু হওয়ার দুইদিন আগে থেকে দেখা যাবে কাঁচা মরিচের কেজি ১৫০ থেকে ২০০ টাকা। আর বেগুণ কেনার সাধ্য থাকবে না কারো।

পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি নুরুল আবছার বলেন, ব্যবসায়ীদের মধ্যে রোজা আসলেই পণ্যের দাম বাড়ানোর প্রবণতা রয়েছে। এ মানসিকতা থেকে ব্যবসায়ীদের বেরিয়ে আসতে হবে।

রমজানে মহাসড়কে পুলিশের চাঁদাবাজির কারণে পণ্যর দাম ‍বৃদ্ধি পায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, রমজান মাসে গাড়ির কাগজপত্র দেখার নামে পুলিশ হয়রানি করে।

বিভিন্ন স্থানে গাড়ির কাগজপত্র না দেখে এক স্থানে চেপপোস্ট বসিয়ে তথ্য যাচাই করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

চাহিদার বিপরিতে রমজানের ভোগ্যপণ্য যথেষ্ট পরিমাণে আমদানি হয়েছে জানিয়ে সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী ইমাম হোসেন বিলু বলেন, বাজারে পণ্যের ঘাটতি নেই।

আমদানি পর্যায়ে মনিটরিং করলেই বাজার নিয়ন্ত্রণ সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

প্রবলেম উন্নয়ন বোর্ড, পিডিবি!

রমজানে পানি ও বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধানের দাবি জানিয়ে বিকেএমইএর সভাপতি শতকত ওসমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন দেশে এখন ১০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম। অথচ আমাদের ৮ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হলেও এক মিনিটের জন্যও লোডশেডিং হওয়ার কথা নয়। কিন্তু প্রতিদিন কয়ঘণ্টা করে বিদ্যুৎ পাচ্ছি তা আপনারা সবাই জানেন।

তিনি বলেন, ১০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম হলে পিডিবির অক্ষমতাটা কোথায়।

বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে না পারায় তিনি পিডিবিকে প্রবলেম উন্নয়ন বোড আখ্যায়িত করেন।

ডিসির বাসায় পানি নাই, অন্যদের কি অবস্থা:
নগরীতে চলমান পানি সংকটের চিত্র তুলে ধরে রমজানে যাতে পানি পায় সে দাবি জানিয়েছেন আলোচকরা। আর সভায় উপস্থিত চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক তার বক্তব্যে পানি সংকটের বিষয়টি অনুধাবন করেছেন বলে জানান।

তিনি বলেন, পানি সংকটের বিষয়টি আমি তীব্রভাবে অনুধাবন করেছি। এরইমধ্যে আমার বাসাতেই তিনবার পানি ছিল না।

ডিসি বলেন, একদিন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীসহ অন্যান্য নেতারা আমার বাসায় থাকা অবস্থায় পানি ছিল না। এসময় সাবেক মেয়র আমাকে বলেন, ডিসির বাসায় পানি নাই, অন্যদের কি অবস্থা।

পরে ভাউচারের মাধ্যমে বাসায় পানি সরবরাহ করা হয় বলে জানান তিনি।

যেখানে ডিসির বাসায় পানি নেই সেখানে অন্যদের কি অবস্থা তা আমি বুঝতে পারি।

ফুটপাতের মার্কেট মাঠে নেওয়ার দাবি:
রমজানে ফুটপাতে অবৈধ মার্কেটের কারণেই যানজট লেগে থাতে বলে অভিযোগ করেন বক্তারা। এসময় তারা রমজান মাসের জন্য এসব মার্কেট নগরীর খালি মাঠে স্থানান্তর করার পরামর্শ দেন।

টিকে গ্রুপের পরিচালক তারিক আহমেদ বলেন, নগরীতের যানজটের অন্যতম কারণ ফুটপাতে অবৈধ মার্কেট। যেহেতু নিম্ন আয়ের লোকজন সেখানে কেনাকাটা করেন তাই মার্কেটগুলো নগরীর খোলা মাঠে সরিয়ে নেওয়া যায়।

মূল্য তালিকা প্রদর্শনের দাবি ক্যাবের:
দোকানে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করার কারণে বিক্রেতারা ইচ্ছে মতো পণ্যের দাম নিয়ে থাকে বলে অভিযোগ করেছেন ক্যাবের নেতারা।

বাজার নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রত্যেক দোকানে মূল্য তালিকা প্রদর্শনের দাবি জানিয়ে ক্যাব চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল বাহার সাবেরি বলেন, নিত্য পণ্যের দাম পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে নির্ধারণ করে ভোক্তা সাধারণকে জানিয়ে দিতে হবে।

পাশাপাশি পণ্য মজুদকারীদের কঠোর নজরদারিতে রাখারও দাবি জানান তিনি।

তেলের দাম বাড়বে না:
গত বছর ভোজ্য তেলের বাজার স্থিতিশীল ছিল দাবি করে এবছরও দাম বাড়বে না বলে আস্বস্থ করেছেন টিকে গ্রুপের পরিচালক তারিক আহমেদ।

দাম না বাড়ার আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, গত বছর তেলের দাম স্থিতিশীল ছিল, এবারও থাকবে।

রাত ২টা পর্যন্ত মার্কেট করা ভালো না:
আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় গত বছর রমজানে গভীর রাত পর্যন্ত নারীরা নির্বিগ্নে মার্কেটে বাজার করতে পারায় প্রশাসনের প্রসংশা করেছেন কয়েকজন নারী নেত্রী।

এবারও যাতে নির্বিগ্নে মার্কেটে যেতে পারেন সেজন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করেন তারা।

সভায় উপস্থিত নগর পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) বনজকুমার মজুমদার বলেন, প্রশাসনের তৎপরতার কারণে নির্বিগ্নে মার্কেট করতে পেরেছেন শুনে আমরা খুশি।

‘মার্কেট করা ভালো, তবে রাত ২টা পর্যন্ত মার্কেট করা ভালো না।’

সবার সহযোগিতা ছাড়া যানজটমুক্ত করা সম্ভব নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা ছাড়া যানজটমুক্ত করা যাবে ‍না।

এদিকে সভায় খাদ্যে ফরমালিন ব্যবহার নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অধিকাংশ বক্তা। তারা যে কোন মূল্যে ফরমালিন বন্ধের দাবি জানিয়েছেন।

আগামী সপ্তাহ থেকে নগরীর সিটি গেইট এলাকায় চেকপোস্ট বসানো হবে জানিয়ে বনজকুমার মজুমদার বলেন, সেখানে সব ধরণের ফল পরীক্ষা করা হবে। – See more at: http://www.banglanews24.com/beta/fullnews/bn/298179.html#sthash.fN1EIglr.dpuf


আরোও সংবাদ