‘রমজানে শুধুমাত্র পঁচনশীল ও কাঁচামালবাহী ট্রাক মহানগরে প্রবেশ করতে পারবে’

প্রকাশ:| বুধবার, ১৮ মে , ২০১৬ সময় ০৮:৫৯ অপরাহ্ণ

দি- মতবিনিময় সভারমজান উপলক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ও আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশ, জেলা প্রশাসন, মার্কেট এসোসিয়েশন, দোকান মালিক সমিতি, পরিবহন, আমদানিকারক, খাদ্য প্রস্তুতকারক, ক্যাবসহ সংশ্লিষ্ট সকলেই সমন্বিতভাবে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বুধবার সকালে নগরীর আগ্রবাদস্থ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে এক মতবিনিময় সভায় এ সিদান্ত নেয়া হয়। চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন ও এসপি এ কে এম হাফিজ আখতার।
পুলিশ কমিশনার বলেন, ‘রমজান মাসে কেবলমাত্র পঁচনশীল পণ্য ও কাঁচামালবাহী ট্রাক দিনের বেলায় মহানগরে প্রবেশ করতে পারবে। অফিস শুরু ও শেষ হওয়ার সময় কন্টেইনারবাহী যান চলাচল বন্ধ রাখার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাঁর বক্তব্যের শুরতেই রসিকতার চলে বলে উঠেন,শুভ মূল্য বৃদ্ধির মাস আসছে !এক
চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম চেম্বারের প্রতিনিধি, পাইকারী এবং খুচরা বিক্রেতাদের প্রতিনিধির সমন্বয়ে মূল্য নির্ধারণ এবং পাইকারী ও খুচরা বাজারে মনিটরিং এর প্রস্তাব করেন। ভোক্তাদের মাসের বাজার এক সাথে না করারও পরামর্শ দেন ।
বিশেষ অতিথি জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন আড়ৎ থেকে মাল বিক্রির ক্ষেত্রে পাকা রশিদ প্রদান করা, মূল্য তালিকা প্রদর্শন, মোবাইল কোর্টে মার্কেট সমিতি ও ক্যাব নেতৃবৃন্দকে সম্পৃক্ত করা, ইফতার বিক্রয়কারী রেস্তোঁরার পরিবেশ উন্নত করা ও ইফতারের মূল্য যৌক্তিক পর্যায়ে রাখার আহবান জানান। তিনি অভিজাত বিপনীগুলোতে ঈদের বাজারে অতিরিক্ত মূল্য আদায় করা হচ্ছে কিনা তা তদারকি করার কথা জানান।
বিশেষ অতিথি এসপি এ.কে.এম. হাফিজ আখতার ঈদের সময় সড়ক পথে দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে কেবলমাত্র প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চালকদ্বারা গাড়ী চালানোর জন্য মালিক সমিতির প্রতি অনুরোধ জানান। ঈদকে কেন্দ্র করে চাঁদাবাজীর ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেন হাফিজ আখতার।
অন্যান্যদের মধ্যে চেম্বার সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. নুরুন নেওয়াজ সেলিম, সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, চেম্বার পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, খাতুনগঞ্জ ট্রেড এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ এসোসিয়েশন’র ছৈয়দ ছগীর আহমেদ, আড়ৎদার সমিতির সাইফুদ্দিন, কাজীর দেওড়ী বাজার সমিতির আবদুর রাজ্জাক, ক্যাবের সভাপতি এস.এম. নাজের হোসাইন ও সেক্রেটারী কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী, দোকান মালিক সমিতির সভাপতি সালামত আলী, মুরাদপুর ব্যবসায়ী সমিতির কামাল উদ্দিন তালুকদার, ডেকোরেটার্স মালিক সমিতির মো. সাহাবউদ্দিন, আন্ত :জেলা মালামাল পরিবহন সংস্থা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির আবুল কালাম আজাদ, টেরী বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি খায়রুল ইসলাম কক্সী ও সেক্রেটারী আব্দুল মান্নান, ফলমন্ডী সমিতির নাজিম উদ্দিন, রেস্তোঁরা মালিক সমিতির ছালেহ আহমদ সোলায়মান ও আমদানিকারকদের পক্ষে আবুল বশর বক্তব্য রাখেন। সভায় চেম্বার পরিচালকবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট সরকারী প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং সর্বস্তরের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।