রমজানকে ঘিরে জোর প্রস্তুতি ৩৬৫০ টন পণ্য মজুত

প্রকাশ:| রবিবার, ৯ মার্চ , ২০১৪ সময় ১১:৪৬ অপরাহ্ণ

আসন্ন পবিত্র রমজানকে ঘিরে চলছে পণ্য মজুতের জোর প্রস্তুতি। এর মধ্যে মৌলিকভাবে রয়েছে ছোলা, খেজুর, ভোজ্যতেল ও চিনি। এছাড়া রমজান উপযোগী অন্যান্য পণ্য সংগ্রহেও রয়েছে আগাম প্রস্তুতি। টিসিবি তথ্য অনুযায়ী, আগামী রমজানে ভোজ্যতেল ২০০০ টন, ছোলা ১৫০০ টন ও খেজুর ১৫০ টন মজুতের টার্গেট নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া চিনিসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় পণ্য মজুতেও রয়েছে সজাগ দৃষ্টি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে টিসিবির ডেপুটি সিনিয়র এক্সিকিউটিভ কর্মকর্তা মো. হুমায়ূন কবির মানবজমিনকে জানান, গত ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এ সংক্রান্ত টেন্ডার আহ্বান করা হয়েছে। সে টেন্ডার অনুযায়ী পণ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। সব পণ্যই পর্যাপ্ত রয়েছে। তবুও যে কোন সঙ্কট এড়াতে এবং পণ্য মজুত আরও বৃদ্ধি করতে ৪ পণ্যের ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। তিনি বলেন, ২০০০ টন ভোজ্যতেল, ১৫০০ টন ছোলা ও ১৫০ টন খেজুর মজুত করা হবে। পাশাপাশি চিনিসহ রমজানে যে সব পণ্যের চাহিদা বেশি সে সব পণ্যও বিশেষ প্রক্রিয়ায় মজুত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। টিসিবি কর্মকর্তা আরও বলেন, সাধারণত তিন কিস্তিতে পণ্য আমদানি করা হয়। এর মধ্যে রমজান অন্যতম। এদিকে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই প্রতি বছরের মতো এবারও রমজানের পণ্য সঙ্কট কাটাতে উদ্যোগ নিয়েছে। তবে প্রতিষ্ঠানটি চূড়ান্ত প্রস্তুতি গ্রহণ করবে শবে বরাতের পর। এ বিষয়ে কথা হয় এফবিসিসিআইয়ের সহসভাপতি মো. হেলাল উদ্দিনের সঙ্গে। তিনি মানবজমিনকে জানান, এখন প্রাথমিক প্রস্তুতি চলছে। তবে চূড়ান্ত প্রস্তুতি নেয়া হবে শবেবরাতের পর। বসা হবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, ট্যারিফ কমিশন, টিসিবি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন পক্ষের সঙ্গে। এ সময় তাদের সঙ্গে যার যে কাজ সে সব বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। গত বছরের অসঙ্গতিগুলো চিহ্নিত করে এবার সতর্কভাবে পা বাড়ানো হবে। বাণিজ্যমন্ত্রণালয়-এফবিসিসিআই যৌথভাবে গঠিত রমজানের পণ্য তদারকের উচ্চ পর্যায়ের কমিটির পদ থেকে গত বছর পদত্যাগের প্রসঙ্গ উঠতেই হেলাল বলেন, ঢাকার প্রবেশদ্বারগুলোসহ পথে পথে পুলিশ চাঁদাবাজি করছিল। পুলিশের হাইকমান্ডকে একাধিকবার বলেও কোন সহযোগিতা পাইনি। তিনি বলেন, যে কমিটিতে থেকে অন্যায়-অসঙ্গতি রোধ করতে পারি না সে কমিটিতে থেকে লাভ কি। তাই সে সময় পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিই। কিন্তু সার্বিক চাপে সে সিদ্ধান্তে অটুট থাকতে পারিনি। তিনি আরও বলেন, এবার ওই রকম কিছু হবে না। আগ থেকেই আমরা প্রস্তুত। যে কোন প্রাকৃতিক ও কৃত্রিম সঙ্কট এড়াতে জোর প্রস্তুতি চলছে।