যৌথ বাহিনীর অভিযানে বান্দরবানে ১২ জন আটক

প্রকাশ:| রবিবার, ১০ মে , ২০১৫ সময় ০৭:৪৩ অপরাহ্ণ

বান্দরবান প্রতিনিধি॥
আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বান্দরবানে ইউপিডিএফ নেতাকে গুলি বর্ষণের ঘটনায় ১২ জনকে আটক করা হয়েছে। যৌথ বাহিনীর অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ঘটনার পর থেকে আজ রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত জেলা সদরের কুহালং, রাজবিলা, নোয়াপতং ইউনিয়ন’সহ আশপাশের এলাকায় সেনাবাহিনী ও পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে ১২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের কয়েকজনের নাম পাওয়া গেছে। এরা হলেন-সুফল চাকমা, লুথোয়াই মং মার্মা, পুশৈসিং মার্মা, এটেন তঞ্চঙ্গ্যা, বাবুল তঞ্চঙ্গ্যা ও রাংগোলা তঞ্চঙ্গ্যা, আতুসে মার্মা, মনুপ্রু মার্মা, ক্যসাই মার্মা, মংসাথোয়াই মার্মা, নুথোয়াইমং মার্মা। এদিকে ইউপিডিএফের পক্ষ থেকে সভাপতি ছোটন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা বাদী হয়ে শনিবাররাতে থানায় ২৫ জনের নামে মামলা দায়ের করেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে যৌথ বাহিনীর অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ঘটনাস্থল বালাঘাটা বাজার’সহ আশপাশের এলাকায় সেনাবাহিনী’সহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শহরের বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।
কুহালং ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সানুপ্রু মারমা ও রাজবিলা ইউপি চেয়ারম্যান ক্যসিংশৈ মারমা বলেন, ঘটনার সঙ্গে প্রকৃত অপরাধীরা ধরাছোয়ার বাইরে রয়েছে। প্রকৃত অপরাধীকে খুঁজে বের করে শাস্তি দেওয়া হোক। কিন্তু এখন ওই ঘটনায় আটকের নামে সাধারণ জনগণকে পুলিশ হয়রানী করছে।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের অভিযান চালানো হচ্ছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ১২জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় ইউপিডিএফের সভাপতি ছোটন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা জেএসএস জড়িত বলে দাবি করছেন। জেলা জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)সভাপতি উচমং মারমা বলেন, আমরা গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাসী। সামনে পিসিপি’র (পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ) কেন্দ্রীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি বান্দরবানে অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠান সফল করতে না দেওয়ার উদ্দেশ্যে ইউপিডিএফ নেতারা নিজেরাই এই ঘটনা সাজাতে পারে। জেএসএস এ ঘটনার সঙ্গে কোনোভাবে জড়িত নয়।
প্রসঙ্গত: আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বান্দরবানের বালাঘাটায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) জেলা সাধারণ সম্পাদক বিক্রম তঞ্চঙ্গ্যার উপর ৫ রাউন্ড গুলি করে। এসময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নাছির উদ্দিন (২৬) নামে স্থানীয় এক যুবকও গুলিবিদ্ধ হয়।