যৌতুকের দায়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশ:| রবিবার, ১০ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ১০:৩৮ অপরাহ্ণ

অভিযোগনোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হাতিয়ায় যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

রবিবার বিকালে হাতিয়ার চরকিং ইউনিয়নের শুলকিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্ত্রীর নাম মেরিনা বেগমকে (২৫)। পাষণ্ড স্বামীর নাম নুরনবী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত ৩ বছর আগে হাতিয়া পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের আলাম বলির বাড়ির রুহুল আমিনের মেয়ে মেরিনা বেগমের সাথে চরকিং ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের শুলকিয়া গ্রামের তালুক মিয়ার পুত্র নুর নবীর বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে নূর নবী বিরুদ্ধে অভিযোগ সে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে চাপাচপি করে আসছিলো। গত বছর রুহুল আমিন তার মেয়ের আকুতি-মিনতিতে মেয়ে জামাই’র হাতে ২০ হাজার টাকা তুলে দেয়।

মেরিনার বাবা রুহুল আমিন বিবার্তার কাছে অভিযোগ করে বলেন, নূর নবী আবারও ২০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় এক মাস আগে নূর নবী আমার মেয়েকেবেধড়ক মারধর করে। এ সময় মেরিনা ৩/৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা থাকায় তার পেটের বাচ্চাটি নষ্ট হয়ে যায়।

অনেক টাকা খরচ করে মেরিনাকে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করতে না করতেই আবার রবিবার নূর নবী ও তার মা মেরিনার উপর শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করেছে। রবিবার দুপুরে মেরিনাকে প্রথমে পিটিয়ে ও পেটে লাথি দিয়ে মেরে ফেলে রান্না ঘরে মেঝেতে শুইয়ে রাখে ও গলায় ছেড়া শাড়ি পেঁছিয়ে রাখে। পরে নূর নবীসহ পরিবারের ঘরের লোকজন লাশ রেখে পালিয়ে যায়। পাশের বাড়ির এক মহিলা বিকেলে রান্না ঘরে মেরিনার মৃত দেহ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার দিলে আশ পাশের লোকজন আসে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে বিকেলে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে হাতিয়া থানার এসআই ইমাম হোসেন জানায়, লাশের গায়ে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।