যুবলীগ নেতা হিরুকে হত্যা চেষ্টা

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট , ২০১৭ সময় ০৪:৩৭ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান ঃ রাউজানের হলদিয়ায় যুবলীগ নেতা হিরুকে হত্যার উদ্যোশে তার ঘরে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হামলা যুবলীগ নেতা হিরুর স্ত্রী পারভিন আকতারের সাহসিকতা ভুমিকার কারনে প্রানে রক্ষা পেলেন যুবলীগ নেতা হিরু । রাউজান উপজেলার ১ নং হলদিয়া ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের হলদিয়া দুলর্ভ কাজীর বাড়ীর বাসিন্দ্বা হলদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সহ সভাপতি জাহেদুল ইসলাম হিরুকে হত্যার উদ্যোশে গতকাল ২২ আগষ্ট রাত ২টার সময় একদল সশ্রস্ত্র সন্ত্রাসী তার ঘরের সামনের দরজা ভেঙ্গে গৃহে প্রবেশ করে । সশ্রস্ত্র সন্ত্রাসীর যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরু(৩৫) কে তার শয়ন কক্ষের মধ্যে চেপে ধরে তার বুকে অস্ত্র তাক করে গুলি করার প্রচেষ্টা চালায় । এসময়ে সন্ত্রাসীদের তাক করা রাইফেলের গুলি ফায়ার হয়নি । স্বামী যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুকে সন্ত্রাসীরা গুলি করে হত্যার দৃশ্য দেখে তার স্ত্রী পারভীন আকতার (২৮) শয়ন কক্ষের রুম থেকে বের হয়ে পার্শ্বের রুম থেকে ধারালো কিরিচ নিয়ে সন্ত্রাসীদের এলোপাতারী কুপিয়ে আহত করে । এতে তিন সন্ত্রাসীর মধ্যে দুই সন্ত্রাসী মারাত্বক ভাবে আহত হয় । ঘটনার সময়ে যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুর পরিবারের সদস্যরা শোর চিৎকার করলে প্রতিবেশী লোকজন চারিদিক থেকে ছুটে আসলে পারভীন আকতারের কিরিচের আঘাতে আহত সন্ত্রাসীদের নিয়ে হামলাকারী অনান্য সন্ত্রাসীরা পার্শ্ববর্তী পাহাড়ী এলাকা দিয়ে পালিয়ে যায় । যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুর ঘরে সন্ত্রাসীরা ব্যাপক ভাংচুর করে । হামলার শিকার যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরু ও তার স্ত্রী পারভীন আকতার বলেন, রাতে ভাত থেকে স্বামী স্ত্রী দুই জনেই তাদের শয়ন কক্ষে ঘুমায় । রাত ২ টার সময়ে শয়ন কক্ষের জানালা দিয়ে যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুকে রাউজান থানা এস আই সাইমুল পরিচয় দিয়ে ডেকে সন্ত্রাসীরা । এসময়ে পুলিশ ভেবে যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরু তার শয়ন কক্ষের দরজা খুলে ঘরের সামনের বারান্দায় আসার সময়ে সন্ত্রাসীরা বারান্দার দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করতে দেখে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময়ে সন্ত্রাসীরা যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুকে তার শয়ন কক্ষের মধ্যে জাপটে ধরে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে । সন্ত্রাসীদের ব্যকহৃত অস্ত্রের ফায়ার না হওয়ায় সন্ত্রাসীরা যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুকে চেপে ধরে হত্যার প্রচেষ্টা করে । এসময়ে যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুর স্ত্রী ধারালো কিরিচ নিয়ে সন্ত্রাসীরদর উপর চড়া ও হলে সন্ত্রাসীরা কিরিচের আঘাতে আহত হয় । প্রতিবেশীরা ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায় । ঘটনার সংবাদ পেয়ে রাতেই রাউজান থানার ওসি কেপায়েত উল্ল্যাহ সহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় । পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত অস্ত্রের ফায়ার না হওয়া দুই রাউন্ড গুলি ও পারভিন আকতারের হাতে থাকা রক্ত মাখা কিরিচটি উদ্বার করে । ঘটনার সংবাদ পেয়ে গতকাল ২২ আগষ্ট দুপুরে রাউজান – রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন । যুবলীগ নেতা নাসির হত্যাকান্ডের আসামী জাফর, লেদু, খোরশেদ এই ঘটনা সংগঠিত করছেন বলে এলাকার লোকজন জানান । যুবলীগ নেতা নাসির হত্যাকান্ডের আসামী জাফর, লেদু, খোরশেদ রাউজানের হলদিয়া রাবার বাগান এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে এলাকার লোকজন জানিয়েছেন । ঘটনাস্থল পরির্দশন করে আসা রাউজান থানার এ এস আই শাহাজাহান বলেন সন্ত্রাসীরা যুবলীগ নেতা জাহেদল ইসলাম হিরুকে হত্যার উদ্যোশে তার ঘরে হানা দেয় । সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত অস্ত্রের ফায়ার না হওয়ায় ও যুবলীগ নেতা জাহেদুল ইসলাম হিরুর স্ত্রী পারভীন আকতারের কিরিচের আঘাতে দুই সন্ত্রাসী আহত হওয়ায় সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায় । ঘটনাস্থল থেকে ফায়ার না হওয়া দুই রাউন্ড গুলি উদ্বার করা হয়েছে । রাউজান থানার এস আই কামাল বলেন ঘটনাস্থলে রাউজান – রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম তদন্তের জন্য গেছেন । ঘটনার ব্যাপারে মামলার প্রক্রিয়া চলছে ।