নোয়াপাড়ার সন্ত্রাসী যুবলীগ মোবারক খুন, দেহরক্ষী আহত

প্রকাশ:| শনিবার, ১৭ আগস্ট , ২০১৩ সময় ০৯:৫৪ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান প্রতিনিধিঃএলাকার প্রভাব বিস্তার নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্ধের জের ধরে দক্ষিণ রাউজানের শীর্ষ সন্ত্রাসী মোহাম্মদ মোবারক খুন হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছে নোয়াপাড়া চৌধুরীহাট ও পার্শ্ববতী এলাকা পলোয়ানপাড়ায় প্রভাব বিস্তার নিয়ে দীর্ঘ দিন চাপা উত্তেজনা চলে আসছিল মোবারকের সাথে পলোয়ান পাড়ার তার কতিপয় সহযোগির মধ্যে।
গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় পলোয়ান পাড়ায় ছিল একটি শালিশী বৈঠক। এই বৈঠকে উপস্থিত হয় সহযোগিদের নিয়ে মোবারক। প্রতিপক্ষ সহযোগি পলোয়ান পাড়া আবদুর রশিদ এখানে মোবারকের উপস্থিতি ভাল চোখে দেখেনি। বৈঠকে শালিশী বিষয়ে কথাবার্তায় দুজন দুই পক্ষে অবস্থান নিয়ে তর্কে জড়ায়। এ সময় রশিদ ও মোবারকের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। সর্বশেষ মোবারক উত্তেজিত হয়ে বৈঠক ছেড়ে যাওয়ার পথে রশিদের পক্ষের লোকজন উপর দা চুরি ও বন্দুক নিয়ে হামলা করেএতে মোবারক গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আশংঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে নোয়াপাড়া পাইওনিয়ার হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। এই ঘটনায় আহত হয় মোবারকের টেক্সি চালক মোহাম্মদ সেকান্দর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায় নিহত মোবারকের নামে থানায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের হাটহাজারী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আ ফ ম নিজাম উদ্দিনখুন বলেন, ‘আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে একই দলের প্রতিপক্ষ দু’গ্রুপের মধ্যে ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এসময় মোবারককে প্রতিপক্ষের লোকজন কুপিয়ে গুরুতর আহত করার পর সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়।’

গুরুতর আহত জসীমকে নোয়াপাড়া পথেরহাট এলাকায় পাইওনিয়ার হাসপাতালে নামে একটি বেসরকারী ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান সহকারী পুলিশ সুপার।

এদিকে ঘটনার পর নোয়াপাড়ার চৌধুরীহাটসহ আশপাশের এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। চৌধুরীহাটে দোকানপাটসহ বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে।


আরোও সংবাদ