যা নিয়ে যেতে পারেন বেড়াতে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২২ মে , ২০১৫ সময় ১০:২০ অপরাহ্ণ

আত্মীয়র সঙ্গে দেখা হয় না অনেক দিন, তাই কোনো উপলক্ষ্য ছাড়াই একসঙ্গে কিছু সময় কাটানোর ইচ্ছা। হঠাৎ দাওয়াত আসলো তাদের বাসায় থেকে। হতে পারে সকালের নাস্তা, দুপুরের বা রাতের খাবারের দাওয়াত। সেখানে আপনি যাচ্ছেন অতিথি হয়ে। উপলক্ষ্য না থাকলেও শুধু হাতে গিয়ে উপস্থিত হওয়াটা নিশ্চয় আত্মসম্মানের জন্য কিছুটা ক্ষতিকারক। এখন কি করবেন? ইচ্ছা থাকলে উপায় এসে ধরা দেবে সহজেই। আসুন দেখে নেয়া যাক এমন কিছু উপহার সম্পর্কে-
উপহার

উপহার১
* আপ্যায়নকারী হয়তো আপনাদের জন্য সুন্দর একটি রাতের খাবারের (ডিনার) আয়োজন করেছেন। অথচ বাস্তব সত্য হল পরের দিন নিজেদের সকালের নাস্তার জন্য রাখবে সাধারণ কিছু। তাই আপনারা যখন তাদের বাসায় রাতের খাবারের অতিথি হয়ে যাচ্ছেন তখন উপহার হিসেবে কিছু নাস্তার আইটেম নিয়ে যেতে পারেন। সুন্দর একটি টি টাওয়েলে মোড়ানো কফি জার, কিছু চকলেট বিস্কুট, টোস্ট, জেলি, ব্রেড বা দেশিয় ঐতিহ্যবাহী রকমারি পিঠা। এতে আপনার নিজের কাছেও ছোট লাগবে না। আবার তাদেরকেও প্রকারন্তে আপ্যায়ন করে আসলেন। মজার সব গল্প কারার মাঝে ডিনার পার করলেন, হাসি মুখে বিদায় নিলেন। শেষ এখানেই নয়, পরের দিন সকালে নাস্তা করার সময় আপনাকে তারা মনে করবে ভীষণভাবে। আন্তরিকতাও অটুট থাকবে সুন্দর ভাবে।

* ফুল পৃথিবীর সব চেয়ে সুন্দর উপহার। স্নিগ্ধতা, পবিত্রতা মাখা এই উপহারকে আরও বেশি নান্দনিক করে তুলতে পারেন নিজের বুদ্ধি খাটিয়ে। ফুলের সঙ্গে এমন কিছু জিনিস সংযোগ করতে পারেন যা আপ্যায়নকারী পরেও ব্যবহার করতে পারবে। ফুলের সঙ্গে দিতে পারেন মনকাড়া একটি ফুলদানি, ফুল দীর্ঘদিন সতেজ রাখার উপকরণ, ফুলের তোড়া বাধা রকমারি ফিতা, ফুল মুড়ে রাখা নানা নকশার প্লাস্টিক পেপার ইত্যাদি। এগুলো পেয়ে আপনার আত্মীয় নিঃসন্দেহে অভিভূত হবেন।

* আপনার হাতে তৈরি ঘর সাজানোর কোনো উপকরণ যেমন- ওয়ালম্যাট, পেইন্ট, হস্তশিল্প, দোরঘণ্টি, নকশাদার যে কোনো কিছু উপহার হিসেবে নিয়ে যেতে পারেন। এটি অবশ্যই আপনার আপ্যায়নকারীর মন কাড়বে। এসব উপহার ঘর সাজাতেও যেমন আপনার কথাও তাদের কাছে বার বার জানান দিতে উত্তম।