ময়মনসিংহ, বরিশাল, ফেনী, দিনাজপুর ও যশোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৫

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| রবিবার, ২০ মে , ২০১৮ সময় ০৬:১০ অপরাহ্ণ

ময়মনসিংহ, বরিশাল ও ফেনীতে পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩জন নিহত হয়েছে। গতকাল রাতে তিন জেলায় পুলিশের অভিযান চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের ভাষ্য, ফেনী ও ময়মনসিংহে নিহত দুজন মাদক ব্যবসায়ী। আর বরিশালে নিহত ব্যক্তি ডাকাত।
পুলিশ জানায়, নোয়াখালীর ছাগলনাইয়া উপজেলার পশ্চিম পাঠানগড় গ্রামে একটি মাদকের আস্তানায় অভিযান চালালে এ সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্যে করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আলমগীর হোসেনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে। আহত আলমগীর হোসেনকে চিকিৎসার জন্য ফেনী সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
অন্যদিকে, ময়মনসিংহে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আরেক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহ শহরের চরপাড়া এলাকায়। গতকাল রাতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ব্যক্তির নাম বিপ্লব। পুলিশ জানায়, চরপাড়া এলাকায় মাদকের একটি চালান বিভিন্ন এলাকায় বিক্রির জন্য ভাগাভাগি করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে রাত সোয়া দুইটার দিকে ডিবি পুলিশ সেখানে হানা দেয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে নিহত বিপ্লব ও তাঁর সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছুড়তে শুরু করেন। পুলিশ পাল্টা গুলি করলে বিপ্লব গুলিবিদ্ধ হন। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক বিপ্লবকে মৃত ঘোষণা করেন।
বরিশালে ডিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবক নিহত হয়েছেন। বরিশাল নগরের কাউনিয়া থানার ওসি নুরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, কয়েক দিন আগে দক্ষিণ চর আইচা গ্রামে আবদুল হক হাওলাদার নামের এক বাসিন্দার বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় কাউনিয়া থানায় একটি মামলা হয়। মামলাটি তদন্ত ডিবি পুলিশ। গতকাল রাত তিনটার দিকে ডিবি পুলিশের একটি দল ওই এলাকায় গেলে শায়েস্তাবাদ ইউনিয়নের দক্ষিণ চর আইচা গ্রামের বটতলাবাজার এলাকায় গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে ডাকাতেরা। এতে পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে ডাকাত সদস্যরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞাতপরিচয় ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
দিনাজপুরের বিরলে পুলিশের সাথে বন্ধুক যুদ্ধে কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী গাল কাটা বাবু (৪০)নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছে,পুলিশের দু’সদস্য আরিফুল ইসলাম ও শহিদুল ইসলাম। তারা দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নিহত মাদক ব্যবসায়ী গাল কাটা বাবু বিরল উপজেলার তেঘরা নারায়ণপুর গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের ছেলে। আজ রোববার ভোর সাড়ে ৩টায় দিনাজপুর-বিরল উপজেলা সড়কের ২ নং ফরক্কাবাদ ইউপি’র সাবদাপাড়া নার্সারী এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ টু-টু বোর রাইফেল সদৃশ্য একটি বন্ধুক, ৪টি ককটেল, ২টি সামুরাই ও ১৯৩ পিস ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে। নিহত বাবুর বিরুদ্ধে ৯টি মামলা রয়েছে।
বিরল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মজিদ সরকার জানায়,ফেন্সিডিলের চালান যাচ্ছে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিরল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে মাদক ব্যবসায়ী গাল কাটা বাবু ও তার সহযোগিরা পুলিশের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালালে কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী গাল কাটা বাবু (৪০) নিহত হন। এ সময় আহত হয়েছেন পুলিশের দুই কনেস্টেবল আরিফুলম ইসলাম ও শহিদুল ইসলাম। তাদের দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত মাদক ব্যবসায়ী গাল কাটা বাবুর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
যশোরে বন্দুকযুদ্ধে অজ্ঞাত (৩৫) এক যুবক নিহত হয়েছে। গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে যশোর শহরতলীর যশোর ছুটিপুর সড়কের আকবর মিয়ার রড ফ্যাক্টরির এলাকায় দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটছে। খবর পাওয়ার পর পরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং পুলিশের উপস্থিতি টেরে পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে তল্লাসী চালিয়ে অজ্ঞাত এক যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে দ্রুত যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শ্যুটার গান, ৫০০ পিস ইয়াবা, ২ রাউন্ড গুলি ও ৪ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করে। নিহত যুবকের লাশ যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। যশোর কোতয়ালী থানার অফিসার ইন চার্জ আজমল হুদা বন্দুকযুদ্ধে একজনের নহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।