ম্যাচ পরিত্যক্ত, এগিয়ে বাংলাদেশ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ , ২০১৭ সময় ১০:২৬ অপরাহ্ণ

ডাম্বুলায় বৃষ্টিরই জয় হলো। স্থানীয় সময় রাত পৌণে নয়টায় বৃষ্টি না থামায় আম্পায়াররা ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন। এতে দুই দল সমান পয়েন্ট পাবে। প্রথম ম্যাচে জয়ের সুবাদে সিরিজে এগিয়ে রইলো বাংলাদেশই। শেষ খেলাতে বাংলাদেশ হারলেও সিরিজ শেষ হবে ড্রতে। যদি সেটিও পরিত্যক্ত হয় তবে সিরিজ জিতবে বাংলাদেশ। আর শ্রীলঙ্কা জিতলে সিরিজে থাকবে সমতা।
এর আগে ২০১৩ সালের ২৮শে মার্চ শ্রীলঙ্কার পাল্লেকেলেতে বৃষ্টি বিঘিœত ম্যাচে জিতেছিল বাংলাদেশই। সেবারও শ্রীলঙ্কা করেছিল ৩০০‘র বেশি রান। এবার তারা শুরটা মার মার ভাবে করলেও খুব বড় স্কোর গড়তে পারেনি শ্রীলঙ্কা। শেষ পর্যন্ত এক বল বাকি থাকতেই অলআউট হয়ে যায় ৩১১ রানে। বাংলাদেশকে জিততে হলে করতে হবে ৩১২ রান। শেষ ওভারে বাংলাদেশের পেস বোলার তাসকিন আহমেদ পরপর তিন বলে তিন উইকেট নিয়ে হ্যাটট্রিক করার কৃতিত্ব দেখান। এ পেসার ৪ উইকেট নেন ৪৭ রানে। বাংলাদেশের মাশরাফি. মেহেদী আর মোস্তাফিজ একটি করে উইকেট পান। তিন জন রানআউট হন। ২০০ রান পার হওয়ার পর মাত্র ৩ রানের ব্যবধানে দুই উইকেট হারালে চাপে পড়ে শ্রীলঙ্কা। অবশ্য এর পরে প্রথমে চান্ডিমাল মোস্তাফিজের বলে লেগ বিফোর উইকেট। আর পরে তাসকিনের হাতে কট অ্যান্ড বোল্ড কুশল মেন্ডিস। চান্ডিমাল ২৪ আর কুশল ১০২ রান করেন। ৩৮ ওভারে স্বাগতিকদের সংগ্রহ ২২০/৪। ৩৬ ওভার শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ছিল ২১০/২। শেষ ১২ ওভারে শ্রীলঙ্কার  ৯১ রান করে।
শুরুটা বেশ ধীরে করেছিলেন কুশল মেন্ডিস। এরপর ধীরে ধীরে চড়াও হতে থাকেন। ৬৩ বলে ৫০ করার পর ১০১ বলে পূর্ণ করেন সেঞ্চুরি। ওয়ানডেতে আট ফিফটির পরে এটি তার প্রথম সেঞ্চুরি।
অধিনায়ক উপল থারাঙ্গা আর কুশল মেন্ডিসের শতরানের জুটিতে বড় সংগ্রহের ভিত পায় শ্রীলঙ্কা। ২৫তম ওভারে রান আউট হন অধিনায়ক থারাঙ্গা। ৭৬ বলে ৬৫ করেন তিনি।  দ্বিতীয় উইকেটে এ জুটি এরই মধ্যে ১১১ রান তুলে । ২৪ ওভার শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ছিল ১ উইকেটে ১২০। থারাঙ্গা পেরিয়ে গেছেন ৫০ রানের গন্ডি। ৬৩ বলে ৫০ করেন মেন্ডিস। ২৫ ওভার শেষে সংগ্রহ ১৪০/২।
বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে টস জিতেছিল শ্রীলঙ্কা। অধিনায়ক উপল থারাঙ্গা বাংলাদেশ আগে ব্যাটিংয়ে পাঠান। ওই ম্যাচ স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা হারে ৯০ রানে।
ডাম্বুলার দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও টস জিতলা লঙ্কানরা। তবে এবার তারা আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিলো। এটি আবার লঙ্কান অধিনায়ক থারাঙ্গার ২০০তম ওয়ানডে। সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য শ্রীলঙ্কা দলে তিনটি পরিবর্তন এসেছে। অন্যদিকে সিরিজ নির্ধারনী ম্যাচে আগের একাদশ নিয়েই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ।
শ্রীলঙ্কার ইনিংসের শুরুতেই আঘাত হানেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। দলীয় ১৮ রানে ব্যক্তিগত ৯ রানে দানুসকা গুনাতিলাকাকে ফেরান তিনি। তবে এরপর ঘুরে দাঁড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা।
বাংলাদেশ একাদশ
তামিম ইকবাল. সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদি হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা, তাসকিন আহমেদ ও মোস্তাফিজুর রহমান।