মো আবদুল খালেক ও অধ্যাপক মো খালেদ সমাজের জ্যোতির্ময় নক্ষত্র

প্রকাশ:| শনিবার, ২৮ জুন , ২০১৪ সময় ০৭:৩১ অপরাহ্ণ

স্মৃতি পরিষদের সভায় বক্তারা
স্মৃতি পরিষদের সভায় বক্তারা
ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আবদুল খালেক ও অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ ঘুণেধরা সমাজের জ্যোতির্ময় নক্ষত্র। তাঁদের চেতনার আলোয় আলোকিত সমাজ ব্যবস্থা গঠন করা গেলে দেশ-জাতি উপকৃত হবে। সর্বোপরি দেশের মানুষ সমৃদ্ধ হবে।
ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আবদুল খালেক ও অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ স্মৃতি পরিষদের সভায় বক্তারা উপর্যুক্ত কথা বলেন।
সংগঠনের সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি ওসমান গণি চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালির সঞ্চালনায় গত ২৭ জুন, শুক্রবার দৈনিক আজাদী ভবনের চতুর্থ তলায় অনুষ্ঠিত সভায় নির্ধারিত বিষয়ের উপর আলোকপাত করেন মো. আবদুর রহিম, দীপংকর চৌধুরী কাজল, অধ্যাপক মোহাম্মদ মুছা কলিমুল্লাহ, মুহাম্মদ মহসীন চৌধুরী, শামসুদ্দীন শিশির, শিল্পী শওকত জাহান, মির্জা ইমতিয়াজ শাওন, মুহাম্মদ হাসান মুরাদ চৌধুরী, মো. মনিরুল ইসলাম চৌধুরী, মোহাম্মদ জহির, এ.টি.এম শহীদুল্লাহ, মোর্শেদুল হক চৌধুরী, জাহের মো. আলাউদ্দিন খান, মো. জসীম উদ্দিন চৌধুরী, মো. আসাদুজ্জামান জেবিন, মো. মোরশেদ আলম বাবলু, আসফাক আহমদ, গাজী ইসলামাবাদী, মো. মুরাদ চৌধুরী, মোহাম্মদ নুরুল আলম, মো. সেলিম, মো. সাখাওয়াত হোসেন, মো. মিজানুর রহমান, সনেট চক্রবর্ত্তী, সাব্বির হোসাইন, মুকিম, মো. আশরাফ উল্লাহ, এরশাদ আহম্মদ চৌধুরী, মোহাম্মদ নুরুল মোস্তফা প্রমুখ।
সভায় সর্বসম্মতিক্রমে গঠনতন্ত্র প্রণয়ন উপ-কমিটি এবং আগামী ৬ জুলাই অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদের জন্মদিবস উদ্যাপন উপ পরিষদ গঠন করা হয়। সিদ্ধান্তনুযায়ী মরহুমের কবরে পুষ্পার্ঘ অর্পণ, কোরআনখানি এবং ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হবে। এছাড়া, দাতা সদস্য, আজীবন সদস্য এবং সাধারণ সদস্য সংগ্রহের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত এবং নির্দিষ্ট সদস্য ফি নির্ধারণ করা হয়।