মোট আয়করের ১৩.১৯ শতাংশ আয়কর চট্টগ্রামের অবদান

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৯ নভেম্বর , ২০১৭ সময় ১০:২২ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও তিন পার্বত্য জেলার করদাতারা বিগত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৮ হাজার ৪১৮ কোটি টাকা কর দিয়েছে; যা দেশের মোট আয়কর আদায়ের ১৩.১৯ শতাংশ। এর আগের অর্থবছরে চট্টগ্রামের কর অবদান ছিল ১৩ শতাংশ।

শতাংশের হিসাবে দেশের মোট আয়করে এবার চট্টগ্রামের অবদান কিছুটা বেড়েছে।

এ ছাড়া কর আদায়ের প্রতিবছর প্রবৃদ্ধি বিবেচনায় চট্টগ্রাম কর বিভাগ (চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও তিন পার্বত্য জেলা) অনেক এগিয়ে আছে। গত বছর জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে সারা দেশে আয়কর আদায়ে গড় প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৯ শতাংশ। আর চট্টগ্রামের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৪ শতাংশ বেশি অর্থাৎ ২৩ শতাংশ। অর্থাৎ প্রবৃদ্ধি ও আয়কর প্রদানে চট্টগ্রামের অবদান ক্রমেই বাড়ছে।

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-১ কমিশনার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের আয়কর আদায়ের গড় প্রবৃদ্ধির চেয়ে গত অর্থবছরে চট্টগ্রামে প্রবৃদ্ধি ৪ শতাংশ বেশি হয়েছে। প্রতিবছরই চট্টগ্রাম বিভাগের ৪টি কর অঞ্চল থেকে কর আদায়ের পরিমাণ বাড়ছে। এতে মোট আয়করে চট্টগ্রামের অবদান বাড়ছেই। ’

কর বিভাগ জানিয়েছে, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলা এবং রাঙামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি—এই তিন পার্বত্য জেলা নিয়ে চট্টগ্রামের ৪টি কর অঞ্চল পুনর্গঠিত হয়েছে ২০১৩ সালে।

এর আগে চট্টগ্রাম কর অঞ্চলের আওতায় ছিল তিন পার্বত্য জেলা এবং কক্সবাজার থেকে লক্ষ্মীপুর পর্যন্ত মোট ১১টি জেলা এবং চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশন। বিগত ২০১৩ সাল থেকে কুমিল্লা, ফেনী, নোয়াখালী, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং কুমিল্লা সিটি করপোরেশনকে নিয়ে পৃথক কুমিল্লা কর অঞ্চল করা হয়েছে। পরিধি কমে যাওয়ায় ২০১৩ সালের পর চট্টগ্রামের কর আদায়ের পরিধি কমেছে। কিন্তু ধাপে ধাপে আবারও কর আদায় বেড়েছে।

জানতে চাইলে জুনিয়র চেম্বার চিটাগাংয়ের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘আগে চট্টগ্রাম বিভাগ মিলিয়ে যে পরিমাণ কর আদায় হতো এখন পাঁচটি জেলা থেকে এর অনেক বেশি কর জমা হচ্ছে। এতেই বোঝা যায়, চট্টগ্রাম ঐতিহ্যগতভাবে অন্য অনেক বিষয়ের মতো কর প্রদানেও এগিয়ে আছে। কর আদায় পদ্ধতি সহজ ও হয়রানি বন্ধ করা গেলে মানুষ অনেক বেশি কর দিতে উৎসাহিত হবে। ’

কর বিভাগের হিসাবে, বিগত ২০১৩-১৪ অর্থবছরে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল থেকে আদায় হয়েছিল ৬ হাজার ৩৯৩ কোটি টাকা; যা দেশের মোট আয়করের সাড়ে ১৪ শতাংশ। এর পরের বছর চট্টগ্রাম থেকে কর জমা হয়েছিল ৬ হাজার ২১৮ কোটি টাকা, যা দেশের মোট আয়করের সাড়ে ১২ শতাংশ। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে দেশের মোট আয়করের ১৩ শতাংশ জোগান দিয়েছিল চট্টগ্রাম। সর্বশেষ ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশের মোট আয়করের চট্টগ্রামের অবদান কিছুটা বেড়ে ১৩.১৯ শতাংশে উন্নীত হয়।

জানা গেছে, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশে মোট আয়কর আদায় করে ৬৩ হাজার ৭৮১ কোটি টাকা। এর মধ্যে চট্টগ্রাম জোগান দেয় ৮ হাজার ৪১৮ কোটি টাকা; শতাংশের হিসাবে যা ১৩.১৯। চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরে চট্টগ্রাম থেকে আয়কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ হয়েছে ১২ হাজার ১৯০ কোটি টাকা; যা এর আগের অর্থবছরের আদায়ের চেয়ে ৩ হাজার ৭৭২ কোটি টাকা বেশি।

বাড়তি রাজস্ব আদায় করতে গিয়ে বর্তমান করদাতাদের ওপর চাপ না দেওয়ার তাগাদা দিয়ে চট্টগ্রাম চেম্বার পরিচালক মাহবুবুল হক চৌধুরী বাবর বলেন, ‘কর আদায়ের পরিধি বাড়ানো এবং কর প্রদানে নতুনদের উৎসাহিত করেই বাড়তি লক্ষ্যমাত্রা পূরণে মনোযোগ দেওয়া উচিত। আর চট্টগ্রাম থেকে আয়করের ১৩ শতাংশ দেওয়া হলেও সেটা চট্টগ্রামের উন্নয়নের প্রতিও বেশি গুরুত্ব দেওয়া উচিত। ’

তবে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-১ কমিশনার মাহবুব হোসেন বলেছেন, নতুন লক্ষ্যমাত্রা পূরণে বিদ্যমান আয়করদাতাদের ওপর চাপ পড়বে না। কারণ আমরা নতুন করদাতা শনাক্ত, স্বতঃপ্রণোদিত করদাতাকে বাড়াতে উপজেলাভিত্তিক কর মেলা করছি এবং কর দেওয়ার সহায়ক পরিবেশ তৈরি করছি। ’


আরোও সংবাদ