মোটরযান শ্রমিকরাও গোষ্ঠীবিমার আওতায় এলো

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৫ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ০৯:১৯ অপরাহ্ণ

মোটরযান শ্রমিক ফোডারেশন ও বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে। এর ফলে মোটরযান শ্রমিকরাও গোষ্ঠীবিমার আওতায় এলো।

মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফয়জুর রহমান এবং মোটরযান শ্রমিক ফোডারেশনের সভাপতি মাহবুবুর রহমান ইসমাইল ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

এ সময় শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু, সচিব মিকাইল শিপার, জীবন বীমা করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পরীক্ষিত দত্ত চৌধুরীসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এক হাজার ৩০০ টাকা প্রিমিয়ামে এ বিমা করা হবে জানিয়ে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, এরমধ্যে ৪৫০ টাকা দেবে শ্রমিক। বাকি ৮৫০ টাকা দেবে সরকারের হয়ে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন।

পাঁচ বছর মেয়াদী এ বিমা প্রকল্পে বিমাকারী কোনো শ্রমিক মারা গেলে তার পরিবার দুই লাখ টাকা পাবেন।

প্রাথমিকভাবে মোটরযান শ্রমিক ফেডারেশনের এক হাজার মোটরযান শ্রমিকের বিমা কার্যক্রম শুরুর মাধ্যমে প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। পরবর্তীতে তা বাড়বে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের তহবিলের মাধ্যমে শ্রমিকদের সুবিধা দেওয়ার উপায় খুঁজছি আমরা। এর আগে নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য গোষ্ঠীবিমা চালু করা হয়েছে। এখন মোটরযান শ্রমিকের বিমার আওতায় আনা হচ্ছে।

গত ১৮ নভেম্বর নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য একটি গোষ্ঠীবিমা স্কিম চালু করা হয়। ইতোমধ্যে ৩০৩ জন নির্মাণশ্রমিক এ বিমার আওতায় এসেছে বলেও জানান চুন্নু।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত অংশের অর্থ ফাউন্ডেশনে জমা দেওয়ার ফলে বর্তমানে তহবিলে ৫০ কোটি টাকার বেশি জমা হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, যারা দেননি আমরা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছি।

এর মধ্যে পোশাক মালিকরা এখনো মুনাফার অর্থ জমা দেননি।

তবে ৯৫ শতাংশ পোশাক কারখানা নূন্যতম মজুরি বাস্তবায়ন করেছে জানিয়ে চুন্নু বলেন, যারা বাস্তবায়ন করেননি, শিগগিরই তারাও নূন্যতম মজুরি বাস্তবায়ন করবেন।