মুহাম্মদ আশরাফ খানের দাফন সম্পন্ন

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| রবিবার, ৩ জুন , ২০১৮ সময় ০৯:০৪ অপরাহ্ণ

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিশ্বস্ত সহচর, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ষাটের দশকের সকল ছাত্র-গণ আন্দোলনের অন্যতম নেতা, চট্টগ্রাম কলেজের প্রাক্তন জিএস, চট্টগ্রাম সিটি কলেজের সাবেক ভিপি, চট্টগ্রাম জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক, ১৯৭১ সালে ২৫মার্চ দিবাগত মধ্যরাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে চট্টগ্রাম নগরে মাইকযোগে স্বাধীনতার ঘোষণা প্রচারকারী, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির সাবেক চেয়ারম্যান ও মহাসচিব, চট্টগ্রাম ইতিহাস চর্চা কেন্দ্রের প্রাক্তন সভাপতি, বর্ষীয়ান জননেতা মুহাম্মদ আশরাফ খান ৩ জুন ২০১৮ রবিবার ভোর ৫টায় চট্টগ্রাম নগরীর পাঠানটুলীস্থ খান বাড়ীতে হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না…রাজেউন)। মৃত্যুকালে মরহুমের বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। তিনি স্ত্রী মেহেরুন নেছা, ১ ছেলে রিয়াত মুহাম্মদ খান, ৩কন্যা, সাহিদা খানম সম্পা, ফৌজিয়া খানম রিংকু, তাহামিনা খানম টিসু সহ অসংখ্যগুণগ্রাহী রেখে যান। ৩ জুন আসরের নামাজেরপর পাঠনাটুলী চট্টশ্বরী গায়েবী মসজিদে মরহুমের জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। মরহুম আশরাফ খানের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে পরিবার-পরিজনেরপ্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন, ঐতিহ্যবাহী মাইজভা-ার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন পীরেত্বরীকত শাহসূফী সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভা-ারী, শাহাজাদা সৈয়দ মোহাম্মদ হাছান মাইজভা-ারী, প্রাক্তন রাষ্ট্রদূত, সাবেক সংসদ সদস্য ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, প্রাক্তন মন্ত্রী আলহাজ্ব জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন চৌধুরী, মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোঃ নিজাম উদ্দিন, মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর মোঃ জাবেদ, কাউন্সিলর তালেক সোলাইমান সেলিম, সাবেক কাউন্সিলর নিয়াজ মোহাম্মদ খান, সাবেক কাউন্সিলর জাবেদ নুরুল ইসলাম, ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা রেজাউল করিম তালুকদার, সাবেক কাউন্সিলর এম.এ জাফর, চট্টগ্রাম ইতিহাস চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি সোহেল মো. ফখরুদ-দীন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম, আল্লামা রুমী সোসাইটির মহাসচিব শাহাজাদ এস.এম সিরাজ-উদ-দৌলা, চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের সাধারণ সম্পাদক আসিফ ইকবাল, সড়ক পরিবহন নেতা আবুল কালাম আজাদ, মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, সাংবাদিক সোহেল তাজ, গ্রীণ লাইন পরিহনের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আলা উদ্দিন, কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ভিসি প্রফেসর ড. আবুল কাশেম, চবির অধ্যাপক ড. জিনবোধি ভিক্ষু, এম.এ সাত্তার, এ.বি.এম ফয়েজ উল্লাহ প্রমুখ বিবৃতিতে শোক প্রকাশ করেছেন। শোক বার্তায় তারা বলেছেন, মুহাম্মদ আশরাফ খান কালজয়ী মানুষ। তিনি একটি ইতিহাস। বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে তাঁর অবদান অপরিসীম। দেশের শুদ্ধ ও গণতন্ত্র চর্চায় আশরাফ খান ছাত্র অবস্থা থেকে অবদান রেখেছেন। আশরাফ খানের মতো দেশপ্রেমিক রাজনীতি বর্তমান সময়ে পাওয়া কঠিন।